বুধবার, ১২ মে ২০২১
logo
আসল বয়স লুকিয়েছেন মোদি!
প্রকাশ : ০৩ মে, ২০১৬ ১১:৪৪:২৮
প্রিন্টঅ-অ+
বিশেষ ওয়েব

চাঁদপুর : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে নতুন বিতর্ক। নিজের হোমপেজে তার জন্মদিন উল্লেখ করা হয়েছে ১৯৫০ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর। অথচ গুজরাট বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেটে দেখা যাচ্ছে জন্মদিন ভিন্ন। কাহিনী কি? বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি নথি সংবাদ মাধ্যমে ফাঁস হওয়ার পর দেখা যায় তার জন্মদিন ১৯৪৯ সালের ২৯শে আগস্ট।


 


মোদির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ১৭ সেপ্টেম্বর জন্মদিন ধরেই ভারতের সব টিভি চ্যানেলে নানান অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে থাকে। কিন্তু টাইমস অব ইন্ডিয়া দাবি করেছে, তাদের হাতে গুজরাট ইউনিভার্সিটির এমন একটি নথি রয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে নরেন্দ্র মোদি ১৯৮৩ সালে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে এমএ ডিগ্রি পেয়েছেন। সেখানে তার জন্মদিন উল্লেখ করা হয়েছে ১৯৪৯ সালের ২৯শে আগস্ট।  


 


 


 


তাছাড়া মোদির পুরনো দিনের একটি টিভি সাক্ষাৎকারও ছড়িয়ে পড়েছে অনলাইনে। ভিডিওতে তিনি নিজে স্বীকার করেছেন তার পড়াশোনা হাইস্কুল পর্যন্ত। ফলে তার আসল বয়স এবং পড়াশুনো নিয়ে উঠেছে গুঞ্জন।


 


এ ঘটনায় বিরোধী দল কংগ্রেস বিবিসিকে বলেছে, তাদের সন্দেহ প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষাগত যোগ্যতা ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে বড় করে দেখাতেই এই জাল নথি তৈরি করা হয়েছে। 


 


 


 


কংগ্রেস নেতা ও দলের জাতীয় মুখপাত্র শক্তি সিং গোহিল বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন, ‘মোদি নিজস্ব ওয়েবসাইট থেকে শুরু করে সব জায়গায় ১৭ সেপ্টেম্বরকে নিজের জন্মদিন বলে দাবি করে এসেছেন। কিন্তু আমি স্টুডেন্ট রেজিস্টার ও তার স্কুল ছাড়ার সময়কার যে সার্টিফিকেট পেয়েছি তাতে বলা হচ্ছে তার জন্মদিন ১৯৪৯ সালের ২৯শে আগস্ট। এটা কেন হবে?’


 


এ কারণেই কংগ্রেসের সন্দেহ, প্রধানমন্ত্রীকে উচ্চশিক্ষিত প্রমাণ করার জন্যই তড়িঘড়ি করে এসব নথি বানানো হয়েছে। তাড়াহুড়ো করতে গিয়েই জন্মদিনের হিসেবে গোলমাল হয়ে গেছে।


 


তথ্যসূত্র : বিবিসি বাংলা 

বিশেষ সংবাদ এর আরো খবর