মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১
logo
বিচারকরা নিয়ন্ত্রিত: খালেদা
প্রকাশ : ০৪ জুলাই, ২০১৫ ২১:২২:১৯
প্রিন্টঅ-অ+
রাজনীতি ওয়েব

ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘দেশের আদালতগুলোর বিচারকরা সরকার কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত। সরকার তাদের আরো নিয়ন্ত্রণ করতে সংসদে এ নিয়ে আরো পরিকল্পনা চলছে।’
শনিবার সুপ্রিমকোর্টর বার অডিটোরিয়ামে ‘মাহে রমজানের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে’ তিনি এ কথা বলেন।
বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্যের ব্যানারে এ ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
তিনি বলেন, ‘আমাদের সময় আমরা বিচারবিভাগে কোনো হস্তক্ষেপ করি নাই। আমরা আওয়ামী লীগ-বিএনপি দেখি নাই। আজকে বিএনপির কর্মী হলে এক রকম বিচার আর আওয়ামী লীগ হলে আরেক বিচার, এ কেমন বিচার ব্যবস্থা?’
খালেদা বলেন, ‘তাদের সময় চলন্ত বাসে গান পাউডার দিয়ে মানুষ মেরেছে, লগি-বৈঠা দিয়ে মানুষ মেরেছে। আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসী।’
তিনি আরো বলেন, ‘দেশে ন্যায় বিচার নেই, আইনের শাসন নেই। দেশে কি আইনের শাসন আছে? আইন সকলের জন্য সমান এ কথা কি সত্য? সত্য না। কারণ আমরা দেখেছি সরকারি দল হলে এক রকম বিচার হয় আর বিরোধী বা সাধারণ মানুষ হলে আরেক রকম বিচার হয়। এ বিচার চলতে পারে না। আইনের চোখে সবাই সমান। অপরাধী যে দলেরই হোক না কেন আইনে তার শাস্তি হবে। সরকারি দলের কেউ অপরাধ করলে তাদের অপরাধ চোখে পড়ে না। তাদের অপরাধী বলা হয় না, তাদের শাস্তি হয় না। কিন্তু বিএনপির লোকেরা অপরাধ না করেও অপরাধী হয়। সারা দেশে আজকে এতো মামলা, বিএনপির প্রত্যেকটা নেতাকর্মীর নামে মামলা দেয়া হয়েছে। বিএনপির কি সবাই অপরাধী? আর আওয়ামী লীগ বা চৌদ্দ দলের সবই সুফি হয়ে গেছে?’
এতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. এমাজ উদ্দিন আহমেদ, ঢাবির সাবেক প্রোভিসি আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, সুপ্রিমকোর্ট বারের সভাপতি ও বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, সুপ্রিমকোর্ট বারের সাবেক সভাপতি ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এজে মোহাম্মদ আলী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সুপ্রিমকোর্ট বারের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, অ্যাডভোকেট মীর নাসির উদ্দিন আহমেদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আহমেদ আযম, নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকন, সাবেক ছাত্রদল সভাপতি ও গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলন, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, ২০ দলীয় জোট নেতা অ্যাডভোকেট খাজা গরীবে নেওয়াজ, ঢাকা বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার, সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, সুপ্রিমকোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, ঢাকা বারের সম্পাদক ওমর ফারুক ফারুকী, ঢাকা কর আইনজীবী সমিতির সেক্রেটারি উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সুপ্রিমকোর্ট বারের সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।
এর আগে বেলা ৩টার পর থেকে সুপ্রিমকোর্টের শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে আইনজীবীরা, আমন্ত্রিত অতিথিরা, বিএনপি ও ছাত্রদল নেতারা এসে উপস্থিত হতে থাকেন। ইফতারের আগে মঞ্চে আসেন বিএনপি চেয়ারপাসন বেগম খালেদা জিয়া।
 

রাজনীতি এর আরো খবর