বুধবার, ২৩ জুন ২০২১
logo
সদ্য সংবাদ :

যে গাছ ফল দেয় সে গাছে ঢিল পড়ে

ফরিদগঞ্জ গল্লাক আদর্শ ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের নবীন বরণ ও উদ্বোধনী ক্লাস অনুষ্ঠিত

চাঁদপুরের মতলবে ইসলামী ব্যাংকে ইফতার মাহফিল

চাঁদপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

চাঁদপুরের উত্তর মৈশাদীতে নিরীহ পরিবারের সম্পত্তি আত্মসাতের পাঁয়তারা

পালানোর জায়গা ঠিক করে রাখুন

চাঁদপুর ফটো সাংবাদিক ফোরামের ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত

চাঁদপুরের বিদায়ী জেলা প্রশাসককে জেলা ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের ফুলেল শুভেচ্ছা

চাঁদপুর অযাচক আশ্রমের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক ইসমাইল হোসেনকে বিদায় সংবর্ধনা

চাঁদপুর জেলা প্রশাসককে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সংবর্ধনা

পালানোর জায়গা ঠিক করে রাখুন
প্রকাশ : ০১ জুলাই, ২০১৫ ২২:৩৪:১৮
প্রিন্টঅ-অ+
রাজনীতি ওয়েব

ঢাকা: ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের প্রতি কড়া হুঁশিয়ারী দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘কোথায় যাবেন? পালানোর জন্য জায়গা ঠিক করে রাখুন। জনগণ আজ জেগে উঠেছে, যখন দড়ি ধরে টান দেবে সরকার তখন খান খান হয়ে যাবে। সাবধান হওয়ার এখনই সময়।’
বুধবার রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির রাজদর্শন হলে ইফতার মাহফিলে এসব কথা বলেন সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী।
রাজনীতিক ও পেশাজীবীদের সম্মানে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) এ ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে।
এতে সভাপতিত্ব করেন সাবেক বিএনপি নেতা এবং বর্তমানে এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ।
খালেদা জিয়া তার বক্তব্যে বলেন, ‘আল্লাহ এ জালিম, অত্যাচারী সরকারকে পরীক্ষা করছে, তারা কতো দুর্নীতি করতে পারে, কতো খারাপ কাজ করতে পারে আর কতো মিথ্যা কথা বলেতে পারে।’
বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার কারণে সরকারের পরিণতি হবে হীরক রাজার কাহিনীর মতো।’
তিনি বলেন, ‘ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করার অপরাধে এ সরকারের সাবেক মন্ত্রী কারাগার থেকে জামিন পেয়ে লুকিয়ে আছেন। এ সরকারের সবার পরিণতি একই হবে, জনগণ সবাইকে খুঁজে বের করবে।’
জোট নেত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার ২০ দলীয় জোটের পেছনে লেগেই আছে। অপরাধ করছে তাদের দলের লোক আর মামলা দেয়া হচ্ছে ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের নামে। আবার তারা জামিনে মুক্ত হলেও তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে যা অত্যন্ত নিন্দনীয়।’
তিনি আরো বলেন, ‘পঁচা গম আমদানি করে দেশের সাধারণ মানুষদের তা খাওয়ানো হচ্ছে।’
পুলিশের একচোখা ভূমিকারও সমালোচনা করেন সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পুলিশ হচ্ছে জনগণের সেবক। অথচ তারা ২০ দলীয় নেতা-কর্মীদের ওপর যেভাবে অত্যাচার করছে, তা দুঃখজনক। কিছু কিছু পুলিশ আছে যারা অতি উৎসাহী হয়ে এসব কাজ করছে। এটা তাদের জন্য ভালো হচ্ছে না।’
ভবিষ্যতে এজন্য সমস্যায় পড়তে হবে বলেও হুঁশিয়ারী দেন তিনি।
খালেদা জিয়ার সঙ্গে এক টেবিলে এলডিপির চেয়ারম্যান অলি আহমেদ ছাড়াও ছিলেন- জাতীয় পার্টির মোস্তফা জামাল হায়দার, জামায়াতে ইসলামীর আবদুল হালিম, ইসলামী ঐক্যজোটের আবদুল লতিফ নেজামী, খেলাফত মজলিশের অধ্যক্ষ মুহাম্মদ ইসহাক, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, জাগপার শফিউল আলম প্রধান, এনডিপির খন্দকার গোলাম মুর্তজা, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ন্যাপের জেবেল রহমান গাণি, ন্যাপ-ভাসানীর আজহারুল ইসলাম, বিজেপির সালাহউদ্দিন মতিন প্রকাশ, সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, জমিয়তে উলামা ইসলামের মাওলানা মহিউদ্দিন ইকরাম, পিপলস লীগের গরীবে নেওয়াজ, মুসলিম লীগের এএইচএম কামরুজ্জামান খান, ডিএলর সাইফুদ্দিন মনি, আবু তাহের চৌধুরী, এলডিপির রেদোয়ান আহমেদ ও সাহাদাত হোসেন সেলিম।
 

রাজনীতি এর আরো খবর