বুধবার, ২৩ জুন ২০২১
logo
ইউপি নির্বাচন শেষ
প্রকাশ : ০৪ জুন, ২০১৬ ১৬:৩০:৫১
প্রিন্টঅ-অ+
জাতীয় ওয়েব

ঢাকা: আগ্রহ-উৎকণ্ঠা ও আলোচনা-সমালোচনার মধ্য দিয়ে শেষ হলো প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। শনিবার ষষ্ঠ ধাপের তথা শেষ ধাপে ৭১০টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
শনিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে ষষ্ঠ ধাপের নির্বাচন শেষ হয় যথারীতি বিকেল ৪টায়। এখন চলছে ভোট গণনা।
তবে প্রথম ধাপ থেকে শুরু প্রতি ধাপেই ভোটকেন্দ্রগুলোতে ব্যাপক হামলা, দখল, ব্যালট পেপার ও ব্যালট বক্স ছিনতাই, ভাঙচুর এবং সংঘর্ষ হয়েছে। ষষ্ঠ ধাপেও এর ব্যতিক্রম ছিল না। নতুন বার্তা প্রতিনিধিদের পাঠানো প্রতিবেদনে এর প্রমাণ মিলেছে।
তবে ষষ্ঠ ধাপের নির্বাচনে আগের পাঁচ ধাপের তুলনায় নিহতের সংখ্যা কমেছে। ভোট শেষ হওয়া পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যে শনিবার ফেনীতে একজন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন এলাকায় হামলা, সংঘর্ষ ও আহত হওয়ার খবর ছিল আগের ধাপগুলোর মতোই।
নির্বাচন কমিশন সূত্র মতে, এর আগে প্রথম ধাপে ৭১২, দ্বিতীয় ধাপে ৬৩৯, তৃতীয় ধাপে ৬১৫, চতুর্থ ধাপে ৭০৩ ও পঞ্চম ধাপে ৭১৭ ইউপিতে নির্বাচন হয়েছে।
তবে এসবের মধ্যে সংঘর্ষ, হামলা, মামলা, কেন্দ্র দখলসহ নানা অনিয়ম এবং বিচ্ছিন্নভাবে কিছু সহিংসতার কারণে কিছু ইউপির নির্বাচন আংশিক বা সম্পূর্ণ বাতিল বা স্থগিত করা হয়।
ইসি সূত্রে জানা গেছে, বরাবরের মতো ষষ্ঠ ধাপের নির্বাচন উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট জেলার ৭১০টি ইউপিতে শুক্রবার ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী উপকরণ পাঠানো হয়। ভোটের একদিন আগে থেকেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও মাঠে ছিলেন। নির্বাচনী অপরাধের শাস্তি প্রদানে নিয়োগ ছির নির্বাহী ও বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট। এ ছাড়াও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য মিলিয়ে প্রায় দুই লাখ ফোর্স নির্বাচন পরিচালনায় সহায়তা করে।
শেষ ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্রসহ বিভিন্ন দলের তিন হাজারের মতো প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ছাড়া সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য মিলে প্রায় ৩০ হাজারের মতো প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
এসব প্রার্থীর মধ্যে বিএনপির একাধিক চেয়ারম্যান প্র্রার্থী ভোট শুরু পর নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। তবে বেশির ভাগ প্রার্থী ও সমর্থকরা ভোট শেষে এখন ফলাফলের জন্য অপেক্ষায় আছেন।

জাতীয় এর আরো খবর