সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১
logo
অভিনেত্রী পারভিন সুলতানা দিতি আর নেই
প্রকাশ : ২০ মার্চ, ২০১৬ ১৮:০৪:৪১
প্রিন্টঅ-অ+
বিনোদন ওয়েব

ঢাকা: দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ দিতি রোববার বিকেল ৪টা ৫ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।
হাসপাতালের কমিউনিকেশন অ্যান্ড মার্কেটিং বিভাগের প্রধান সাগুফা আনোয়ার  এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।
১৯৬৫ সালের ৩১ মার্চ নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁওয়ে জন্মগ্রহণ করেন দিতি।
গত বছরের মাঝামাঝি অসুস্থ হয়ে পড়েন দিতি। তখন পরীক্ষায় তার মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়ে। এরপর ওই বছরের ২৫ জুলাই ভারতের চেন্নাইয়ে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীকে।
এরপর গত ২০ সেপ্টেম্বর দেশে ফেরেন দিতি। চেন্নাই থেকে ফেরার পর বাসায় ছিলেন তিনি।
মস্তিস্কে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে দ্বিতীয় দফায় ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়েছিলেন আশির দশকের নায়িকা পারভীন সুলতানা দিতি। কিন্তু সেখানে তার চিকিৎসকরা আশা জাগানোর মতো কিছু করতে পারেননি। তাই বাধ্য হয়ে দিতিকে দেশে নিয়ে আসা হয় গত জানুয়ারিতে।
দেশে ফেরার পরপরই তাকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে।
দিতির মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র ‘আমিই ওস্তাদ’। ছবিটি পরিচালনা করেছিলেন আজমল হুদা মিঠু। এরপর দিতি প্রায় দুই শতাধিক ছবিতে অভিনয় করেন।
সুভাষ দত্ত পরিচালিত ‘স্বামী স্ত্রী’ ছবিতে দিতি আলমগীরের স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেন। এই ছবিতেই অভিনয় করে দিতি প্রথমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।
অসুস্থ হওয়ার আগ পর্যন্ত দিতি ছোট পর্দার বেশ কিছু একক ও ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করেন । এ ছাড়া তিনি রান্না বিষয়ক একটি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন।
দিতির উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র: হীরামতি, দুই জীবন, ভাই বন্ধু, উছিলা, লেডি ইন্সপেক্টর, খুনের বদলা, আজকের হাঙ্গামা, স্নেহের প্রতিদান (১৯৯৯), শেষ উপহার, চরম আঘাত, স্বামী-স্ত্রী, অপরাধী, কালিয়া, কাল সকালে(২০০৫), মেঘের কোলে রোদ(২০০৮), আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা (২০০৮), মুক্তি (২০১৪), কঠিন প্রতিশোধ (২০১৪), জোনাকির আলো (২০১৪), তবুও, ভালোবাসি (২০১৩), পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী (২০১৩), হৃদয় ভাঙ্গা ঢেউ (২০১১), মাটির ঠিকানা (২০১১), নয় নম্বর বিপদ সংকেত (২০০৭), দূর্জয় (১৯৯৬), সুইট হার্ট।

বিনোদন এর আরো খবর