রোববার, ২৫ জুলাই ২০২১
logo
ছাত্রীকে যৌন হয়রানি: রাবি শিক্ষকের বাধ্যতামূলক অবসর
প্রকাশ : ২২ এপ্রিল, ২০১৬ ১১:৩৯:১৪
প্রিন্টঅ-অ+
শিক্ষা ওয়েব

রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক কামরুল হাসান মজুমদারকে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে।
 
বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৬৫তম সিন্ডিকেট বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
 
শুক্রবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক আমজাদ হোসেন গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
 
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান সিন্ডিকেটের এই সিদ্ধান্তে নোট অব ডিসেন্ট দিয়েছেন।
 
এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে বৈঠকে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ কমিটি’র গঠন ও কার্য প্রক্রিয়ায় সমস্যা আছে।
 
২০১৪ সালের অক্টোবরের শেষের দিকে ভূ-তত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক কামরুল হাসান মজুমদারের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ কমিটি’র কাছে যৌন হয়রানির লিখিত অভিযোগ দেন।
 
পরে ওই বছরের নভেম্বরে এ অভিযোগের ভিত্তিতে কামরুল হাসান মজুমদারকে বিভাগের পরীক্ষা ও ছাত্রীদের গবেষণা সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।
 
যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ কমিটি সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক কামরুল হাসান মজুমদার মুঠোফোনে ছাত্রীটিকে একাধিকার আপত্তিকর প্রস্তাব দিয়েছেন। তার প্রস্তাবে সম্মত হলে বিভাগে ভালো ফলাফলের নিশ্চয়তাসহ শিক্ষক হওয়ার লোভনীয় সুযোগের ব্যাপারে প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করেন ওই শিক্ষক। ওই ছাত্রী তার প্রস্তাব প্রত্যাখান করেন।
 
পরে তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় কমিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের কাছে ২০১৫ সালের ২৭ এপ্রিল তাকে চাকরিচুত্য করার সুপারিশ করে।
 
সিন্ডিকেট সুপারিশ গ্রহণ করে একটি সুপারিশ পর্যালোচনা ও বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করে।
 
বিশ্ববিদ্যালয়ে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সায়েন উদ্দিন আহমদের নেতৃত্বে চার সদস্যের এ কমিটি পর্যালোচনা শেষে তাকে বাধ্যতামূলক অবসরের সুপারিশ করলে গতকাল সিন্ডিকেটে তা অনুমোদন করা হয়।

শিক্ষাঙ্গন এর আরো খবর