বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১
logo
সেনাবাহিনীর প্যাডে ভুয়া নিয়োগপত্র, আটক ৩
প্রকাশ : ১৯ মে, ২০১৬ ১০:২৪:৫২
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব

মেহেরপুর : সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেয়ার সময় মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার আনন্দবাস গ্রামবাসী তিন প্রতারক যুবককে আটক করেছে।
বুধবার (১৮ মে) সন্ধ্যায় গ্রামবাসী তাদের আটকের পর মুজিবনগর থানা পুলিশে সোপর্দ করে।
আটককৃতরা হলেন-কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ক্ষিদিরামপুর গ্রামের জামায়াত শেখের ছেলে ফিরোজ হোসেন (২২) ও একই উপজেলার আমলা সদরপুর গ্রামের ফিরু মণ্ডলের ছেলে আতাহার আলী (২৪) এবং চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার কেদারনগর গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে আনারুল ইসলাম (২৫)।
মুজিবনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী কামাল হোসেন জানান, আনন্দবাস গ্রামের আহম্মদ আলীর ছেলে সোহেল রানা ও একই গ্রামের ইব্রাহিম মোল্লার ছেলে মিলন হোসেনকে সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার কথা বলে মোটা অংকের টাকার মৌখিক চুক্তি করে আটক তিন যুবক। বুধবার সন্ধ্যায় তারা নিয়োগ কার্ড হাতে করে সোহেল ও মিলনের বাড়িতে এসে টাকা দাবি করে। দুই প্রার্থীর পরিবার থেকে তাদের ছয় লাখ করে মোট ১২ লাখ টাকা পরিশোধ করার কথা ছিল।
ভুক্তভোগীদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, প্রতারকদের দেয়া নিয়োগপত্র সেনাবাহিনীর প্যাডে। এতে সেনাবাহিনীর লোগো ব্যবহার করা হয়েছে। নিয়োগপত্রের উপরে চাকরিপ্রার্থীর ছবি যুক্ত করা হয়েছে। এর নিচে রিক্রুটিং অফিসারের নামীয় সিলমোহর ও স্বাক্ষর দেয়া হয়েছে।
ওইসব দেখে নিয়োগপ্রত্যাশীরা প্রথমে নিয়োগপত্র সঠিক মনে করলেও কিছুটা সন্দেহ সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর শুরু হলে তিন প্রতারক পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে গ্রামবাসী তাদের আটক করে মারধর করলে ভুয়া নিয়োগপত্রের বিষয়টি স্বীকার করে তারা। তবে এ ঘটনার আগে কোনো টাকা দেয়া না হলেও এর আগে দুই প্রার্থীর কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকা অগ্রিম নিয়েছিলেন ওই তিন যুবক।
প্রতারণার অভিযোগে ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের নামে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ওই মামলার আসামি হিসেবে বৃহস্পতিবার সকালে তিন যুবককে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুজিবনগর থানার ওসি কাজী কামাল হোসেন।

জেলা এর আরো খবর