বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১
logo
চাঁদপুরের সকল মসজিদে মুসল্লিদের উপচেপড়া ভিড়
বৈরি আবহাওয়া উপেক্ষা করে পালিত হলো পবিত্র জুম্মাতুল বিদা
প্রকাশ : ০২ জুলাই, ২০১৬ ০৯:৫৮:০৭
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে গতকাল ১ জুলাই রমজানের শেষ শুক্রবার পবিত্র জুমাতুল বিদা পালিত হয়েছে। দিনটিতে চাঁদপুর বায়তুল আমিন রেলওয়ে জামে মসজিদে কয়েক শহস্রাধিক মুসল্লি মানুষ এক কাতারে জুম্মার নামাজ আদায় করেছেন।
    পবিত্র রমজান মাসের শেষ শুক্রবার জুমাতুল বিদা হিসেবে পালিত হয়ে থাকে। রহমত, মাগফেরাত শেষে রমজানের শেষ ১০ দিন নাজাতের আজ পঞ্চম দিন। বিদায়ী জুমা হিসেবে জুমাতুল বিদা রোজাদারদের কাছে আরো বেশি গুরুত্বপূর্ণ।
    রমজানের শেষ জুম্মায় স্থানীয় মসজিদে নামাজ পড়তে মুসল্লিরা জড়ো হয়। চাঁদপুরের সকল মসজিদগুলো কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে স্থান সংকুলান না হওয়ায় মসজিদের সিঁড়ি, ছাদ এবং সামনের রাস্তাগুলোতে দু’ রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করেন। সকাল থেকেই বৈরি আবহওয়ার প্রতিকূলতা ও ঝুম বৃষ্টির মধ্য দিয়ে মুসল্লিদের নামাজে অনেকটাই ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়েছে। শহরের বেশ ক’টি মসজিদের সামনে খোলা জায়গায় বৃষ্টির পানি জমে থাকায় অনেককে নামাজ আদায় করতে বেগ পেতে হয়েছে। তবে বৃষ্টি ছাড়াও মুসল্লিদের ভোগান্তিও কমতি ছিল না। বিশেষত: ওজু করতে গিয়ে তাদের বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। জায়গা না পেয়ে মুসল্লিরা উত্তেজিত হতে দেখা গেছে।
    এদিকে শেষ জুম্মার নামাজ আদায় এবং মোনাজাতে চাঁদপুর বাইতুল আমিন রেলওয়ে জামে মসজিদে বিভিন্ন স্থান থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা অংশ নেন। সকল বয়সী মানুষের পাশাপাশি অনেক শিশু তার বাবার হাত ধরে আসে মসজিদে। বাইতুল আমিন রেলওয়ে জামে মসজিদটিতে মহিলাদের জন্যেও ছিলো বিশেষ নামাজের ব্যবস্থা। নামাজ শেষে দেশ-জাতি এবং মুসলিম উম্মার শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাতে মুসল্লিরা পাপমোচন এবং মৃত স্বজনদের মাগফেরাত কামনা করে প্রার্থনা করেন।
    রমজানের শেষ শুক্রবার ছিলো মুসলমানদের কাছে সতর্কতামূলক দিন। দিনটিতে রোজাদারকে স্মরণ করিয়ে দেয়, আগামীতে আর রমজান নাও পাওয়া যেতে পারে। তাই এর চেয়ে ভালো দিন আর পাওয়া যাবে না।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর