রোববার, ২৫ জুলাই ২০২১
logo
ফরিদগঞ্জে মাদকের ভয়াবহতা প্রতিরোধে আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে ড. মোহাম্মদ শামছূল হক ভূঁইয়া এমপি
মাদকের বিরুদ্ধে সমাজের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বিকল্প নেই
প্রকাশ : ০৭ জুন, ২০১৬ ১১:৩১:০৯
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছূল হক ভূঁইয়া বলেছেন, মাদক আমাদের সমাজের জন্যে একটি ভয়াবহ ব্যাধিতে রূপ নিয়েছে। এটি ক্রমশ বিস্তার লাভ করছে। এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার উপায় হলো এটি প্রতিরোধে এগিয়ে আসা। মাদকের বিরুদ্ধে সমাজের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বিকল্প নেই। কারণ, সরকার, প্রশাসন বা পুলিশ কারো একার পক্ষে এদের নির্মূল করা অসম্ভব। এ জন্যে সমাজে বসবাসকারী প্রতিটি পেশার লোকজনকে তার স্ব স্ব অবস্থান থেকে মাদকের ভয়াবহতা সম্পর্কে গণসচেতনতা গড়ে তুলতে হবে। পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠ সদস্যকে তার প্রতিটি সদস্য কি করে, কোথায় যায় এ সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে। আমাদের সর্বদা সতর্ক থাকতে হবে, যাতে আমাদের কোনো আচার আচরণ বা কথাবার্তায় কোনো মাদকসেবী বা মাদক ব্যবসায়ী উৎসাহ বা প্রশ্রয় না পায়। প্রত্যেকে যদি আমরা নিজ নিজ দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন না হই, তবে বিবেকের কাছেই প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে থাকতে হবে। তাই আসুন আমরা সকলে মিলে একটি মাদক মুক্ত সমাজ গঠনে সহায়ক শক্তি হিসেবে নিজেকে দাঁড় করাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সোনার বাংলা গড়ার যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, যার বাস্তবায়নের কাজ তাঁরই সুযোগ্য কন্যা প্রধানন্ত্রী শেখ হাসিনা করে যাচ্ছেন সেই অভীষ্ট লক্ষ্যে পেঁৗছাতে একটি মাদক মুক্ত সমাজ প্রয়োজন। তিনি মাদক নিয়ন্ত্রণে সমাজকে সচেতন করে তুলতে জেলা পুলিশ সুপারের রচনা প্রতিযোগিতার উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন, যেভাবে পারেন সেভাবেই মাদক প্রতিরোধে কাজ করুন। তার ফল আপনারা তথা সমাজ পাবেই। গতকাল সোমবার বিকেলে মাদকের ভয়াবহতা সম্পর্কে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে চাঁদপুর পুলিশ সুপার কর্তৃক আয়োজিত 'মাদকদ্রব্য সেবনের কুফল এবং প্রতিকারের উপায়' শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছূল হক ভঁূইয়া একথা বলেন।
ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সের অডিটোরিয়ামে পুলিশ সুপারের আয়োজনে অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার বলেন, মাদক আমাদের সমাজ ব্যবস্থার জন্যে একটি অভিশাপ। মাদক একটি পরিবারের উপর কী ধরনের ভয়াবহতা নিয়ে আসে তার বহু উদহারণ চাঁদপুরেই রয়েছে। তিনি একটি উদাহরণ দিয়ে বলেন, একটি মাদকসেবী ছেলের কারণে ৪টি পরিবার দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে। তাই মাদকের হাত থেকে মুক্তি ছাড়া আমাদের কোনো উপায় নেই। রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজনের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এ প্রতিযোগিতা একটি সচেতনতা সৃষ্টির ধারাবাহিক অংশ। রচনা প্রতিযোগিতায় চাঁদপুর জেলার প্রতিটি স্কুলের সব শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। আমরা সেভাবে ব্যবস্থা করেছি। মাদকের কুফল এবং প্রতিকারে ব্যবস্থা নিয়ে শিক্ষার্থীরা যখন রচনা লিখেছে, তা তদারকি করতে যেয়ে তার অভিভাবক ও শিক্ষকের সাথে জড়িয়ে গেছে। যা প্রকারান্তরে তাদের মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরির ক্ষেত্র সৃষ্টি হয়েছে। আজ আমরা শুরু করেছি, কাল থেকে সমাজে যারা আপনারা বসবাস করছেন তারা শুরু করেন, দেখবেন সমাজ থেকে মাদক নির্মূল হবেই। তিনি বলেন, বাল্য বিবাহ, নারী নির্যাতন, ইভটিজিংসহ সমাজের অস্থিরতা তৈরি করার মতো অপরাধগুলো নিয়ন্ত্রণ করতেই হবে। এজন্যে আমাদের সকলকেই সমাজ সংস্কারকের ভূমিকা নিতে হবে।
সভায় অতিথি হিসেবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার, ইউএনও জয়নাল আবদিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারী, ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহফুজুল হক, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা, মহিলা রিনা নাসরিন, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি মামুনুর রশিদ পাঠান, ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ কুন্তল কৃষ্ণনাথ, গৃদকালিন্দিয়া হাজেরা হাসমত ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ড. মোহেবুল্লাহ খান বক্তব্য রাখেন। পরে রচনা প্রতিযোগিতায় তিনটি গ্রুপে বিজয়ী ৯ জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর