শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১
logo
বিভিন্ন রাষ্ট্রাত্ব ব্যাংকে সোয়া ৫ কোটি টাকা মেয়াদোর্ত্তীণ অনাদায়ী ঋণ
চাঁদপুরের ঋণ আদায়ে সহস্রাধিক কৃষকের বিরুদ্ধে অর্থ ঋণ মামলা
প্রকাশ : ১৯ মে, ২০১৬ ২০:২৮:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+
শরীফ চৌধুরী

চাঁদপুর: চাঁদপুরের বিভিন্ন রাষ্ট্রাত্ব ব্যাংকের অনাদায়ী কৃষি ঋণ আদায়ে ১ হাজার ৪শ’ ৬৬জন কৃষকের বিরুদ্ধে অর্থ ঋণ আদালতে মামলা করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এতে দরিদ্র কৃষকরা তাদের ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে হতাশায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, চাঁদপুরের  সোনালী, অগ্রণী, কৃষি ও জনতা ব্যাংকের বিভিন্ন শাখা থেকে কৃষকদের মাঝে বিভিন্ন ফসল চাষাবাদের জন্য দেয়া ঋণের ৫ কোটি ২৫ লাখ ৭৪ হাজার টাকা মেয়াদোর্ত্তীণ অনাদায়ী পড়ে আছে। দীর্ঘ তাগিদ দেয়ার পরও কৃষকরা এসব ঋণ পরিশোধে বারবার ব্যর্থ হচ্ছে। অবশেষে ব্যাংকগুলো তাদের অনাদায়ী এসব ঋণ আদায়ে বাধ্য হয়েই অর্থঋণ আদালতে ১ হাজার ৪শ’ ৬৬জন কৃষকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। চাঁদপুরে উপজেলা ওয়ারী- চাঁদপুর সদরে ৫শ’ ২৪টি, ফরিদগঞ্জে ৯৫টি , হাজীগঞ্জে ৬৬টি, কচুয়ায় ১শ’৫৪টি, শাহারাস্তিতে ১শ’ ৪টি, মতলব দক্ষিণে ২শ’ ৯২টি, মতলব উত্তরে ১শ’ ৮৫টি, এবং হাইমচরে ৪৬ টি অনিস্পন্ন ঋণ মামলা চলমান রয়েছে।
   অগ্রণী ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা বলেন, গ্রাহক ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার পর নির্ধারিত সময়ে তা পরিশোধ না করতে পারলে তখন তার ঋণটি মেয়াদোত্তীর্ণ হিসেবে বিবেচিত হয়ে যায়। ব্যাংক কর্মকর্তাগণ ঋণ গ্রহিতাকে ব্যাক্তিগতভাবে সব প্রকার যোগাযোগ করেও টাকা আদায় করতে না পারলে তখন ব্যাংক সর্বশেষ আর কোনো উপায়ান্তর না দেখে কর্তৃপক্ষের নির্দেষে শাখা ব্যবস্থাপক অথবা সংশি¬ষ্ট ফিল্ড কর্মকর্তা বাদী হয়ে অর্থঋণ আদালতে মামলা দায়ের করতে বাধ্য হয়ে থাকে।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর