মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১
logo
পৃথিবীকে বদলে দিতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান ড. ইউনূসের
প্রকাশ : ২৯ মে, ২০১৬ ১১:৫৮:০৪
প্রিন্টঅ-অ+
ব্যবসা ওয়েব

চাঁদপুর: নোবেল বিজয়ী প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস কানাডার কুইবেকের মন্ট্রিয়েল শহরে নেতৃস্থানীয় ব্যবসা ও উদ্ভাবনী সম্মেলন সিটুএমটিএল-এ মূল বক্তা হিসেবে ভাষণ দিয়েছেন।
প্রতি বছর এই সম্মেলনের আয়োজন হয়। প্রফেসর ইউনূস তার বক্তব্যে সম্মেলনে উপস্থিত সাড়ে তিন হাজার ব্যবসায়ী শ্রোতাকে পৃথিবীকে বদলে দেবার উদ্দেশ্যে ব্যক্তিগত কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ, সামাজিক ব্যবসা হিসেবে সমান্তরাল কোম্পানি সৃষ্টি এবং এই লক্ষ্য অর্জনে প্রত্যেককে একটি সুনির্দিষ্ট গন্তব্য স্থির করতে চ্যালেঞ্জ গ্রহণের আহ্বান জানান।
সি টু কনফারেন্সে প্রফেসর ইউনুসের উপস্থিতির সুযোগ নিতে সামাজিক ব্যবসার ওপর বিশেষভাবে আয়োজিত একটি সেশনে বাণিজ্য, ক্ষুদ্র ব্যবসা ও ট্যুরিজম বিষয়ক কানাডিয়ান মন্ত্রী মিস বারডিশ শ্যাগার প্রফেসর ইউনূসকে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী দর্শক-শ্রোতাদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন।
৩৫ বছর বয়সী মিস শ্যাগার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর মন্ত্রীপরিষদের সর্বকনিষ্ঠ সদস্যদের একজন। সম্মেলন চলাকালে প্রফেসর ইউনুস কুইবেকের প্রধানমন্ত্রী মি: ফিলিপ্পে কুইলার্ডের সঙ্গে একটি সৌজন্য সাক্ষাতেও মিলিত হন। সভায় প্রধানমন্ত্রী কুইবেকে ক্রমবর্ধমান সামাজিক ব্যবসার প্রতি তাঁর সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেন।
মন্ট্রিয়িলে তাঁর ৩ দিনের অবস্থানকালে প্রফেসর ইউনূস কানাডার নেতৃস্থানীয় ব্যবসা শিক্ষা স্কুল এইচইসি মন্ট্রিয়েল পরিদর্শন করেন এবং বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা মোকাবেলায় সামাজিক ব্যবসার ভূমিকা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫০ জন শিক্ষক, ছাত্র ও অ্যালামনাইদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন। এইচইসি মন্ট্রিয়েল ১৬টি দেশ থেকে শতাধিক ছাত্র-ছাত্রীর অংশগ্রহণে একটি গ্লোবাল সামাজিক ব্যবসা প্রতিযোগিতা চালু করেছে যা এ বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে এবং প্রতিযোগিতা শেষে একজনকে চূড়ান্তভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।
প্রফেসর ইউনূস দিনের শুরুতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকলকে কার্যকরভাবে সামাজিক ব্যবসা তৈরি ও পরিচালনা সংক্রান্ত তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।
তিনি এইচইসি মন্ট্রিয়েলের বিজনেস স্কুলের প্রধান ও তার টিমের সঙ্গে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি “সামাজিক ব্যবসা কেন্দ্র” প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে একটি বৈঠকও করেন।

ব্যবসা-অর্থনীতি এর আরো খবর