বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯
logo
অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকি
ফাইনালে বাংলাদেশ
প্রকাশ : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:২৩:৩৬
প্রিন্টঅ-অ+
ক্রীড়া ওয়েব

ঢাকা: শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে দারুণ এক জয়ে অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকিতে শুভ সূচনা করেছিল বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে ম্যাচটি তারা জিতেছিল ৫-৪ গোলে। সে ধারাবাকিতায় টানা আরো দুটি ম্যাচ জিতে ফাইনালে পৌঁছে গেল স্বাগতিকরা।
এই জয়ে প্রথমবারের মতো অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকির ফাইনালে পা রেখেছে বাংলাদেশ। এশীয় হকির দুই পরাশক্তি ভারত ও পাকিস্তান খেলবে বিকালে। শুক্রবার মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে শিরোপা লড়াইয়ে বাংলাদেশ সামনে পাবে এই দুই দলের একটিকে। আজ বিকেলেই দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি উপমহাদেশের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী।
ফাইনালে যারাই সামনে আসুক, বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ব্যাপারে বেশ আশাবাদী। আশরাফুলের স্টিক স্বপ্ন পূরণের কাছাকাছি নিয়ে গেছে স্বাগতিক দলকে। আজ বাংলাদেশের ছয় গোলের তিনটিই আশরাফুলের। টুর্নামেন্টে সব মিলিয়ে তাঁর গোল হলো দশটি।
১১ মিনিটে গোলের খাতা খোলেন আশরাফুল এবং যথারীতি পেনাল্টি কর্নারে। পিছিয়ে পড়ার পাঁচ মিনিটের মধ্যে পেনাল্টি স্ট্রোক পেলেও গোল করতে পারেনি তাইপের পো চুয়ান। তাঁর দুর্বল হিট আটকে দিয়েছেন বাংলাদেশ গোলরক্ষক ইয়াসিন আরাফাত। এরপর প্রাধান্য ধরে রেখে ২৮ মিনিটে ২-০ হয়েছে রাজুর স্টিকে।
প্রথমার্ধে দুই গোলে পিছিয়ে থাকা তাইপে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ঘুরে দাঁড়ায় তাইপে। ৪০ মিনিটে পেনাল্টি কর্নারে ২-১ করে তারা। কিন্তু শক্তির বিচারে অনেকটা এগিয়ে থাকা বাংলাদেশকে রোখার সাধ্য ছিল না তাইপের! ৪৫ মিনিটে পেনাল্টি স্ট্রোকে আশরাফুল, ৫৫ মিনিটে পেনাল্টি কর্নারে আশরাফুল ও ৫৯ মিনিটে সজীব করলেন পঞ্চম গোল। ৬৩ গোল-উৎসবের ইতি টানলেন রাব্বি।
এর আগে ২০০১ সালে মালয়েশিয়ার ইপোতে সেবার অবস্থান ছিল পঞ্চম। গ্রুপে তিন জয় আর তিন ড্রয়ে সেমিফাইনালে ওঠা যায়নি। টুর্নামেন্টের পরের দুটি আসরে বাংলাদেশ খেলেনি। ২০১১ সালে সর্বশেষ টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়া ও রানার্সআপ মালয়েশিয়া অবশ্য এবার খেলতে আসেনি।

খেলা এর আরো খবর