মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০
logo
আর্জেন্টিনাই মেসির উপযুক্ত নয়
প্রকাশ : ১৮ জুলাই, ২০১৫ ১৪:৩৭:৩৬
প্রিন্টঅ-অ+

ভাই মাতিয়াসের সঙ্গে লিও

ক্রীড়া ওয়েব

চাঁদপুর: কোপা আমেরিকা শেষ হওয়ার পর থেকে একের পর এক কটাক্ষ বিদ্ধ করেছে লিওনেল মেসিকে। দিয়েগো মারাদোনার মতো কিংবদন্তি যেমন বলেছেন, ‘‘আর্জেন্টিনার হয়ে একটা বলও ধরতে পারে না মেসি।’’ আবার মেসির নিজের দাদুও বলেছিলেন, ‘‘মেসি অলস।’’ আর তাতেই ভেঙেছে সহ্যের সীমা। তার প্রিয় ভাইকে নিয়ে অনেক কটাক্ষ শুনেছেন। আর নয়। ছোট ভাইয়ের সমালোচনায় ভীষণ চটেছেন মাতিয়াস মেসি। এলএম টেনের সমালোচকদের একহাত নিয়ে মাতিয়াস বলে দিচ্ছেন, ‘‘লিওনেল মেসির মতো ফুটবলার পাওয়ার যোগ্যই নয় আর্জেন্টিনা।’’
এমনিতেই কোপা শেষে এখন ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে পড়েছে আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশন। কর্তারা নাকি আলোচনা করে দেখছেন, কেন কোপায় এত ভাল প্লেয়ার নিয়েও জিততে পারল না দল। তবে এই ব্যর্থতার যাবতীয় দায় যেন পড়েছে মেসির ঘাড়েই। আর সেটাই নাকি মেনে নেওয়া যাচ্ছে না, জানিয়ে দিচ্ছেন মাতিয়াস। নিজের ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্টে বিস্ফোরক মাতিয়াস আরও পোস্ট করেন, ‘‘মেসির একমাত্র দোষ হচ্ছে ও আর্জেন্টিনীয়।’’
শুধু মাত্র আর্জেন্টিনা নয়। এখন বার্সেলোনা নিয়েও কম দোটানায় নেই মেসি। শনিবার ক্লাব নির্বাচনে প্রেসিডেন্টের দৌড়ে হোসে মারিয়া বার্তেমিউয়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে চলেছেন হুয়ান লাপোরতা। যাঁর সঙ্গে মেসির সম্পর্ক দারুণ। ব্রিটিশ প্রচারমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, জনসমক্ষে কিছু না বললেও মেসির পছন্দ নাকি লাপোরতাই। এর আগেও ২০০৩ থেকে ২০১০— প্রেসিডেন্ট ছিলেন লাপোরতা। যে সময় বার্সা প্রথম দলে আস্তে আস্তে নিজেকে নিয়মিত করে তুলছিলেন মেসি। আর এ বারও এলএম টেন নাকি তার ঘনিষ্ঠমহলে বলে রেখেছেন, তার  পছন্দ লাপোরতাই। বার্তেমিউ প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকে মেসির ফর্মের চাকা ঘুরলেও তার সঙ্গে বার্সার বর্তমান কর্তাদের সম্পর্ক ভাল নয়। গত মরসুমে নেইমারকে তার থেকে বেশি মাইনে দেওয়ায় এমনিতেই চটেছিলেন মেসি। ক্লাবের প্রাক্তন অর্থনৈতিক ভাইস প্রেসিডেন্ট হাভিয়ের ফাউসের সম্বন্ধে এলএম টেন বলেছিলেন, ‘‘ফাউস কিছু জানে না ফুটবল সম্পর্কে।’’ পরিস্থিতি এতটাই হাতের বাইরে বেরিয়ে যায় যে মেসিকে বিক্রি করার কথাও ভেবেছিল ক্লাব।
তবে লাপোরতা ক্লাব সমর্থকদের আশ্বস্ত করেছেন, তিনি ক্ষমতায় এলে নাকি মেসি আরও খুশি থাকবে। ‘‘কথা দিচ্ছি মেসিকে কোনও সময় বিক্রি করার কথা ভাবব না। আমি প্রেসিডেন্ট হলে মেসি আরও খুশি থাকবে। কঠিন সময়েও ওর পাশে দাঁড়াব। ওকে সমর্থন করব।’’
বার্সার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে শুধু মেসির ভাগ্যই নির্ভর করে নেই। তার সতীর্থ পেদ্রোর ভবিষ্যত্ও ঝুলে রয়েছে নির্বাচনের উপর। বার্সা উইঙ্গার নাকি ক্লাবকে জানিয়ে দিয়েছেন, রিজার্ভ বেঞ্চে বসে থাকতে তিনি নারাজ। লুই এনরিকেও বলেছেন, ‘‘পেদ্রো যেতে চাইলে আমি আটকাব না।’’ বার্সার এই তারকার জন্য ইতিমধ্যেই প্রাথমিক কথা শুরু করে দিয়েছে চেলসি। নির্বাচনের পরে প্রেসিডেন্ট ঠিক হলে তবেই কোনো ফুটবলারকে সই বা বিক্রি  করতে পারবে দল। - ওয়েবসাইট
 

খেলা এর আরো খবর