বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০
logo
কমলার নাচনে বাগিচার পেছনে ময়লা!
প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৯:০৫:১৬
প্রিন্টঅ-অ+

আইন অমান্য করে ফ্লাইওভারের দেয়ালে পোষ্টার

বিশেষ ওয়েব

ঢাকা: আজ বাদে কাল কারিনা আসছেন ঢাকায়। তার সঙ্গে নাচে গানে মাতোয়ারা হবেন বাংলাদেশের দর্শক, শ্রোতা আর ভক্তরা। তবে হাজার টাকার টিকিট কেটে কনসার্টে আগত দর্শনার্থীদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা সর্ম্পকে সচেতন করাই মূল লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন অনুষ্ঠানটির আয়োজক প্রতিষ্ঠান অন্তর শো বিজ। কিন্তু গত কয়েকদিন রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন অংশে ঘুরে দেখা গিয়েছে ভিন্ন চিত্র। পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা সর্ম্পকে সচেতনতা সৃষ্টি কনসার্টটির মূল উদ্দেশ্য বলা হলেও, তার প্রচারণা চালাতে গিয়ে সিটি কর্পোরেশানের আইন অমান্য করে পোস্টার আর বিলবোর্ড লাগানোর পাশাপাশি নগরীকে অপরিচ্ছন্নও করে তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।    
 
ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সার্বিক সহযোগীতায় আগামীকাল ১২ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এই ‘ক্লিন ঢাকা কনসার্ট উইথ বলিউড কুইন এন্ড এ জে’ শীর্ষক কনসার্ট। এতে প্রধান আকর্ষণ কারিনা ছাড়াও থাকছেন ঢালিউড চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল, বলিউডের বেবিডলখ্যাত কণ্ঠশিল্পী কনিকা কাপুরও জাভেদ আলী।
কিন্তু পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য যে আয়োজন তার প্রচারণাতেই যদি অপরিচ্ছন্ন হয় নগরী, তখন স্বাভাবিক ভাবেই সমালোচনা আসছে কমলার নাচনে বাগিচার পেছনে চাঁদ ঝলমল না করে জমছে ময়লা?
‘আমরা যে নোংরা, আমাদের শহরটা যে অপরিষ্কার, তা বোঝানোর জন্য মুম্বাই থেকে নায়িকা আনতে হচ্ছে!’-এমন সমালোচনায় শুরুতেই তোপের মুখে পড়তে হয় আয়োজক প্রতিষ্ঠান অন্তর শো বিজকে। যদিও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী দাবি করেছেন, ‘পরিচ্ছন্ন, পরিবেশ বান্ধব ও আধুনিক নগর গড়ে তোলার লক্ষে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের প্রচেষ্টা ও উদ্যোগকে সামাজিক আন্দোলনের রূপ দিতেই ‘ক্লিন ঢাকা কনসার্ট উইথ বলিউড কুইন এন্ড এ জে’ শীর্ষক কনসার্ট।’
এদিকে কারিনার আগমনকে কেন্দ্র ইতিমধ্যেই সাজ সাজ রব পড়ে গিয়েছে। রাস্তার মোড়ে মোড়ে বিলবোর্ড, ফেস্টুন আর পোস্টারে ঢাকা পড়েছে অনেক কিছুই। যেগুলোতে শোভা পাচ্ছে কারিনা ও আর অনন্ত জলিলের ছবি।
অন্তর শো বিজের প্রটোকল অফিসার আশিক বাংলামেইলকে জানান, কারিনার আগমনকে কেন্দ্র করে নগরজুড়ে ৭০টি বিলবোর্ড লাগানো হয়েছে। যা আগে কোন কনসার্টের ক্ষেত্রে দেখা যায়নি। অন্যদিকে বিলবোর্ডের পাশাপাশি অর্ধ লক্ষ পোস্টারও ছাপা হয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে পর্যায়ক্রমে এগুলো নগরীর বিভিন্ন দেয়ালে লাগানো হচ্ছে।  
নগর ঘুরে দেখা যায়, রাজধানীর অলিগলির পাশাপাশি মূল সড়ক ও ফ্লাইওভারগুলোর দেয়ালে সাঁটানো হয়েছে কনসার্টের পোস্টার। যা নগরীকে অপরিচ্ছন্ন করার পাশাপাশি আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। বিশেষত ফ্লাইওভারগুলোতে কোন ধরণের পোস্টার লাগানোর উপর সিটি কর্পোরেশেনের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।
তাছাড়া নগরীর সৌন্দর্য রক্ষা ও পরিচ্ছন্নতা বিধানের লক্ষে ‘দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো (নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১২’ রয়েছে। এই আইনে এগুলোকে ‘দণ্ডনীয় অপরাধ’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আইনটির সংজ্ঞায় উল্লেখ করা হয়েছে, ‘দেয়াল’ অর্থ বাসস্থান, অফিস, আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসাকেন্দ্র, শিল্প কারখানা, দোকান বা অন্য কোনো স্থাপনা, কাঁচা বা পাকা যা-ই হোক না কেন, এর বাইরের ও ভেতরের দেয়াল বা উহাদের সীমানা নির্ধারণকারী দেয়াল বা বেড়া, এবং বৃক্ষ, বিদ্যুতের খুঁটি, খাম্বা, সড়ক দ্বীপ, সড়ক বিভাজক, ব্রিজ, কালভার্ট, সড়কের উপরিভাগ ও বাড়ির ছাদও এর অন্তর্ভুক্ত হইবে। আইনটির ৬ (২) ধারায় সংঘটিত এ অপরাধের বিচার করার কথা রয়েছে ভ্রাম্যমান আদালতের।
আইনটির ৩ ও ৪ নম্বর ধারা অনুযায়ী সরকার নির্ধারিত স্থান ছাড়া দেয়ালে লিখলে কিংবা পোস্টার লাগালে সেটি দণ্ডনীয় অপরাধ। কোনো ব্যক্তি ওই ধারা অনুযায়ী অপরাধ করলে কৃত অপরাধের জন্য নুন্যতম পাঁচ হাজার টাকা এবং অনূর্ধ্ব ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করবে, অনাদায়ে অনধিক ১৫ দিন পর্যন্ত বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া যাবে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নিজ খরচে দেয়াল লিখন বা ক্ষেত্রমতে, পোস্টার মুছে ফেলা কিংবা অপসারণের আদেশ দেয়া যাবে।
তারপরও আইন অমান্য করে এমন প্রচারণার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির প্রটোকল অফিসার আশিক বাংলামেইলকে বলেন, ‘কনসার্টের প্রয়োজনেই নগর জুড়ে বিলবোর্ড, প্ল্যাকার্ড, পোস্টার লাগানো হয়েছে। অনুষ্ঠান শেষে এগুলো একসঙ্গে সরিয়ে ফেলার জন্য দুইশ পরিচ্ছন্নতা কর্মী প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তাছাড়া কনসার্ট চলাকালীন সময়ে স্টেডিয়াম ও আশপাশের এলাকায় বেশ কিছু পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করবে।’
কারিনা আর অনন্ত জলিলের নাচ বেবিডলখ্যাত কনিকা কাপুর ও জাভেদ আলীর গানের সঙ্গে পরিচ্ছন্নতার প্রচারণা কিভাবে চলবে? আশিক জানালেন, ‘অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে বিভিন্ন ধরণের সচেতনতামূলক ভিডিও দেখাবো আমরা। অতিথিরাও কথা বলবেন এ প্রসঙ্গে।’
উল্লেখ্য, শুক্রবার জেট এয়ারওয়েজের একটি বিমানে করে মুম্বাই থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবে কারিনা কাপুরসহ ৫৯ জনের একটি দল। ঢাকায় এসে কারিনা কাপুর উঠবেন একটি পাঁচতারকা হোটেলে। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি চলে যাবেন হোটেলে। সেখানে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়ে দলবল নিয়ে হাজির হবেন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। জনপ্রিয় সব গানের তালে ঢাকার দর্শকদের মাতিয়ে রাখবেন। আর এসবের ফাঁকে ফাঁকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে সচেতনতা মূলক ভিডিও দেখানো হবে।
 

বিশেষ সংবাদ এর আরো খবর