রোববার, ১৯ আগস্ট ২০১৮
logo
'ইন্ডিয়ানা জোনস' সৃষ্টিকারী সেই প্রাচীন ট্যাবের রহস্য উন্মোচিত!
প্রকাশ : ২৮ আগস্ট, ২০১৭ ১২:২৬:৩৪
প্রিন্টঅ-অ+
'ইন্ডিয়ানা জোনস' ছবির কোনো একটি পর্ব দেখেননি, সিনেমাপ্রেমী এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। প্রাচীনের হারিয়ে যাওয়া ইতিহাস, আবিষ্কার ইত্যাদি নিয়ে রোমাঞ্চকর এক ফ্রাঞ্চাইজি এটি। ছবিটির কথা সবাই শুনেছেন। কিন্তু অনেকেই জানেন না, এ ছবি তৈরির পেছনে অনুপ্রেরণা জোগায় একটি সত্যিকারের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন। বেবিলোনে বিজ্ঞানীরা খুঁজে পেয়েছিলেন ৩ হাজার ৭০০ বছরের পুরনো মাটির ট্যাবলেট। বলা হয়, সেখানে প্রাচীনকালের অনেক তথ্য রহস্য হয়ে আছে। এই ট্যাবলেটটিই কিন্তু ইন্ডিয়ানা জোনস সৃষ্টির অনুপ্রেরণা। সম্প্রতি রহস্যগুলো উন্মোচিত হয়েছে বলে দাবি করছেন বিজ্ঞানীরা।  
 
অস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব নিউ সাউথ ওয়েলস সিডনির বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ব্যাবিলনীয় সভ্যতার নিদর্শনটি পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো এবং নিখুঁত ত্রিকোমিত্রিক ট্যাব। এটা সেই সময়ের হস্তশিল্পের ফসল। সেই সময়ের পণ্ডিতরা এই ট্যাবের মাধ্যমেই প্রাসাদ, প্রার্থনালয় আর খাল খনের দিক নির্দেশনা দিতেন।
 
 
মাটির এই ট্যাবটি 'প্লিম্পটন ৩২২' নামে পরিচিত। এটাকে আবিষ্কার করা হয় ১৯০০ সালের দিকে। বর্তমানের ইরাকের দক্ষিণাংশে এটি খুঁজে পান পুরাতত্ত্ববিদ, পণ্ডিত, কূটনৈতিক আর পুরাতত্ত্ব ব্যবসায়ী এজার ব্যাঙ্কস। 'ইন্ডিয়ানা জোনস' চরিত্র সৃষ্টির পেছনে এই মানুষটি প্রতীক হয়ে উঠেছিলেন।  
 
প্লিম্পটন ৩২২ বিগত ৭০ বছর ধরে গণিতের পাজল হয়ে রয়েছে। এরপর আবিষ্কৃত হয় যে, ট্যাবটিতে অঙ্কের বিশেষভাবে সাজানো নকশা ব্যবহার করা হয়েছে, যাকে বলে 'পাইথাগোরিয়ান'। এই ট্যাবের পাঠোদ্ধার দীর্ঘদিন ধরে বিজ্ঞানীদের কাছে চ্যালেঞ্জ হয়েছিল। কিন্তু অবশেষে এটা বোঝা গেছে বলে মনে করেন ড. ড্যানিয়েল ম্যান্সফিল্ড। বলেন, আসলে ত্রিকোণোমিতি ভিত্তিক কোণ বা বৃত্তের হিসাব এখানে দেখানো হয়নি। বরং অনুপাতের গণিত রয়েছে। সেই সময় এটা নিঃসন্দেহের গণিতের এক বিস্ময়কর প্রতিভার নমুনা। এটা কেবল বিশ্বের প্রাচীনতম ত্রিকোণোমিতির ট্যাবই নয়, এটা এক পরিপূর্ণ গণিতের ট্যাব। ব্যবিলনীয়দের পাটিগণিত ও জ্যামিতি থেকে একেবারে ভিন্ন এটা।  
 
প্রাচীন সুমেরীয় সভ্যতার লার্সা শহরে এটা খ্রিস্টপূর্ব ১৮২২ থেকে ১৭৯২-এর মধ্যে বানানো হয় বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। তারা আরো জানান, এই ট্যাবে পণ্ডিতরা ৬০টি সংখ্যাসূচক প্রতীক ব্যবহার করেছেন, ঠিক যেমনটা আমাদের ঘড়িতে থাকে।  
 
প্লিম্পটন ৩২২ যে প্রতীক বা অঙ্ক ব্যবহার করা লেখা হয়েছে, সেগুলো দিয়ে লেখা এমন আরো ৬২৯টি ট্যাব খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা।  
 
ট্যাবটি এজার ব্যাঙ্কস-এর কাছ থেকে কিনে নিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞ জর্জ আর্থার প্লিম্পটন। তিনি এর পাঠোদ্ধার নিয়ে একটি বই প্রকাশ করেছেন। সূত্র : ফক্স নিউজ 

রকমারি এর আরো খবর