মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০
logo
‘সবচেয়ে বেশি নারী নির্যাতন বাংলাদেশে’
প্রকাশ : ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৩:৫৫:৪২
প্রিন্টঅ-অ+
রাজনীতি ওয়েব
ঢাকা: বিশ্বের সবচেয়ে বেশি নারী নির্যাতন বাংলাদেশে হয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

খালেদা জিয়া বলেছেন, ‍“নারীর ওপর নির্যাতনে পৃথিবীতে বাংলাদেশের অবস্থান সর্বোচ্চ পর্যায়ে। অনাচারমূলক দুঃশাসনের কারণেই দুর্বৃত্তদের দাপট অত্যূগ্র মাত্রায় বৃদ্ধি পাওয়াতে অসহায় নারীরা মর্মান্তিক পীড়নে পিষ্ট হচ্ছেন।”

বৃহস্পতিবার এক বাণীতে বেগম জিয়া একথা বলেন।

৯ ডিসেম্বর বেগম রোকেয়ার জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ওই বাণী দেন।

পুরো খালেদা জিয়ার বাণীটি নিচে দেয়া হলো–

“বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আমি তার অম্লান স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা এবং বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।”

“রক্ষণশীল সমাজ ব্যবস্থায় বেড়ে ওঠা বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন ছিলেন এ দেশের নারী জাগরণের অগ্রদূত। তিনি তার নিজ জীবনের বাস্তবতার মধ্যে উপলব্ধি করেছিলেন সমাজে নারীর পিছিয়ে থাকা অবস্থান।”

“তিনি উপলব্ধি করেছিলেন পশ্চাদপদ অবস্থানের কারনেই নারীরা বঞ্চিত হচ্ছেন, মানুষের সহজাত সকল ধরণের অধিকার থেকে। তিনি আরো উপলব্ধি করেছিলেন শিক্ষাই নারীর আত্মমর্যাদা প্রতিষ্ঠার প্রধান অবলম্বন। তার জীবন-সংগ্রামের লক্ষ্যই ছিল নারী শিক্ষার বিস্তারের মধ্য দিয়ে নারীমুক্তি। আর নারীমুক্তির বাণী বহন করতে গিয়ে তাকে সমাজের গোঁড়া রক্ষণশীলদের প্রচন্ড আক্রমনের মুখোমুখি হতে হয়েছিল। তা সত্ত্বেও তিনি ছিলেন কর্তব্যকর্মে অদম্য ও অবিচল।”

“বেগম রোকেয়া তার ক্ষুরধার লেখনির মাধ্যমে নারীর প্রতি সমাজের অন্যায় ও বৈষম্যমূলক আচরণের মূলে আঘাত হেনে ছিলেন। সংসার, সমাজ ও অর্থনীতি জীবনের এই তিনটি ক্ষেত্রে নারীকে স্বায়ত্ত্বশাসিত ও আত্মমর্যাদাশীল হতে তিনি গভীরভাবে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন। আর এজন্য তিনি বিশ্বাস করতেন নারীকে উপযুক্ত শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। নারী সমাজকে স্বাবলম্বী করতে তিনি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলে ছিলেন, চারিদিকের সংকীর্ণ কুপমন্ডুক বাধা সত্ত্বেও।”

খালেদা জিয়া আরো বলেন, “বর্তমানে আমাদের সমাজ অনেক দিক দিয়ে অগ্রগতি সাধিত হলেও নারীরা সমাজে এখনো নানাভাবে বঞ্চনার শিকার হচ্ছে। বর্তমানে নারী নির্যাতন মহামারি আকার ধারণ করেছে। নারীর ওপর নির্যাতনে পৃথিবীতে বাংলাদেশের অবস্থান সর্বোচ্চ পর্যায়ে। অনাচারমূলক দুঃশাসনের কারনেই দুর্বৃত্তদের দাপট অত্যূগ্র মাত্রায় বৃদ্ধি পাওয়াতে অসহায় নারীরা মর্মান্তিক পীড়ণে পিষ্ট হচ্ছে।”

নারী মুক্তির দিশারী মহিয়সী নারী বেগম রোকেয়ার দেশে এই অরাজকতা দূরীভূত করে তার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবাইকে দৃঢ় পদক্ষেপে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

রাজনীতি এর আরো খবর