রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯
logo
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন
গণভবনে শামীম ও আইভীকে নিয়ে আজ প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক
প্রকাশ : ২২ নভেম্বর, ২০১৬ ১১:৩৫:৩২
প্রিন্টঅ-অ+
রাজনীতি ওয়েব
নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের নেতাদের নিয়ে আজ গণভবনে বৈঠক করবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দলের পক্ষ থেকে বর্তমান মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তার পক্ষে কাজ করতে শামীম ওসমান এমপিসহ স্থানীয় নেতাদের দিকনির্দেশনা দিতেই এ বৈঠক  ডাকা হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে এই বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওবায়দুল কাদের ঢাকার বাইরে থাকার কারণে নির্ধারিত বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়নি।  এ প্রসঙ্গে গতকাল আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, ‘আগামীকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ নেতাদের গণভবনে ডাকা হয়েছে। আমি তাদের নিয়ে গণভবনে যাব। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে নেতাদের কথা হবে।’ এদিকে বিএনপি নির্বাচনে থাকার ঘোষণা দিলেও দলের প্রার্থী নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে ছিল নানা নাটকীয়তা। নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার নির্বাচন থেকে পিছু হটায় সৃষ্টি হয় এ নাটকীয়তা। সর্বশেষ গত রাতে গুলশানের বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিএনপি নেতা সাখাওয়াত হোসেন খানকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত করেন বেগম খালেদা জিয়া। এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জের স্থানীয় সব নেতাদের মতামত নেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ছাড়া জেলা নেতারা এ বৈঠকে অংশ নেন। আজ আনুষ্ঠানিকভাবে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করা হবে।

এদিকে আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল আওয়ামী লীগের এক শীর্ষস্থানীয় নেতার সঙ্গে শামীম ওসমানের দেখা হয়। সেখানে ওই নেতা শামীম ওসমানকে দলের প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে কাজ করার কথা বলেন। শামীম ওসমানও ওই নেতাকে আশ্বস্ত করেন, তিনি নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবেন।

আগামী ২৪ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন। এর একদিন আগেই আগামীকাল বুধবার মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করছেন সেলিনা হায়াৎ আইভী। এ প্রসঙ্গে আইভী বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, ‘বুধবার পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। সময় হলে সবই দেখতে পাবেন।’ ২০১১ সালের ৩০ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পর ওই বছরের ১ ডিসেম্বর শপথ গ্রহণ করে মেয়র হিসেবে দায়িত্ব শুরু করেন আইভী।

বিএনপি সূত্রে জানা যায়, রবিবার রাতে গুলশান কার্যালয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক হয় নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতা তৈমুর আলম খন্দকার, কাজী মনিরুজ্জামান মনির ও শাহ আলমের। ওই বৈঠকে তৈমুর আলমকে দলের প্রার্থী হওয়ার কথা বলা হলে তিনি বিনয়ের সঙ্গে নির্বাচন না করার কথা জানান। একই সঙ্গে তিনি বেগম জিয়াকে বলেন, আমি গত দুই বছর ধরে বর্তমান নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বক্তৃতা-বিবৃতি দিচ্ছি। যে কারণে ৫ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনে আমরা অংশ নেইনি, একই কারণে আমি নারায়ণগঞ্জ নির্বাচনেও যেতে চাইনি। তার অনাগ্রহের কারণে আলোচনায় উঠে আসে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, এ টি এম কামাল ও সাবেক এমপি আবুল কালামের নাম। তবে প্রাথমিকভাবে সাখাওয়াত হোসেন খানের নামই চূড়ান্ত করা হয়। এ নিয়ে গতকাল নারায়ণগঞ্জ নেতাদের মতামত নেন বেগম জিয়া। রাত সাড়ে ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বৈঠক চলছিল।

ছয় মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র সংগ্রহ : নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে অংশ নিতে এ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন মেয়র পদে ৬ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬জন ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৮৫জন। গতকাল মেয়র পদে মনোনয়ন নিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মাসুম বিল্লাহ। এর আগে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী, বিএনপির সুলতান মাহমুদ, এলডিপির কামাল প্রধান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির মাহবুবুর রহমান ইসমাইল ও কল্যাণ পার্টির রাশেদ চৌধুরী। আগামী ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট করতে নির্বাচন কমিশন যে তফসিল দিয়েছে, তাতে মনোনয়নপত্র জমা নেওয়া হবে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত। ২৬ ও ২৭ নভেম্বর বাছাই শেষে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত?্যাহার করা যাবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। সিটি করপোরেশন হিসেবে যাত্রা শুরুর পর নারায়ণগঞ্জে এটি দ্বিতীয় ভোট। তবে দলীয় প্রতীকে ভোট হবে এবারই প্রথম।
 

রাজনীতি এর আরো খবর