শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯
logo
‘অর্থহীন’ জেলা পরিষদ নির্বাচন করব না: এরশাদ
প্রকাশ : ২০ নভেম্বর, ২০১৬ ১৬:১৪:১৮
প্রিন্টঅ-অ+
রাজনীতি ওয়েব
ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনকে ‘অর্থহীন’ বলে মন্তব্য করে বলেছেন, “জেলা পরিষদ নির্বাচন করব না। কারণ এই নির্বাচন অর্থহীন। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১৪৫ জন লোক মারা গেছে। আমরা হত্যা, হানাহানি এবং অস্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না।”

রোববার রাজধানীর গুলশানে একটি কনভেনশন সেন্টারে বিকল্প ধারা বাংলাদেশের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শহিদুর রহমানের জাতীয় পার্টিতে যোগদান উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে তিনি এমন মন্তব্য করেন।



১৯৮৮ সালে এইচ এম এরশাদের সরকার যে আইন করেছিলেন, সেখানে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে সরকার কর্তৃক নিয়োগ দেয়ার বিধান ছিল, পরে ওই আইন অকার্যকর হয়ে পড়ে। ১৯৮৯ সালে তিন পার্বত্য জেলায় একবারই সরাসরি নির্বাচন হয়। আর কোনো জেলা পরিষদে কখনো ভোট হয়নি।

২০০০ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার নির্বাচিত জেলা পরিষদ গঠনের জন্য নতুন আইন করে। পরের বছর ৬১ জেলায় আওয়ামী লীগের জেলা পর্যায়ের নেতাদের প্রশাসক নিয়োগ দেয়া হয়।

অনির্বাচিত ওই প্রশাসকদের মেয়াদ শেষে আগামী ২৮ ডিসেম্বর দেশে প্রথমবারের মতো ৬১ জেলায় চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে নির্বাচন হচ্ছে, যেখানে দলীয় মনোনয়নের সুযোগ রাখা হয়নি।

সংসদ, সিটি করপোরেশন, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচন হলেও জেলা পরিষদ আইনে প্রত্যক্ষ ভোটের বিধান নেই। প্রতিটি জেলায় স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধিদের ভোটেই জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য নির্বাচিত হবেন।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে না গেলেও ২০১৯ সালে অনুষ্ঠেয় জাতীয় নির্বাচনে জাতীয় পার্টি অংশ নেবে বলে জানিয়েছেন এরশাদ।

আর সেই নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানে কীভাবে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করা উচিৎ, সে বিষয়ে নিজের মতামতও তিনি তুলে ধরেছেন।

তিনি বলেন, “যারা সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছেন তাদের সাথে আলোচনার ভিত্তিতে একটি বিধিসম্মত, বাস্তবসম্মত নির্বাচন কমিশন গঠন করা হোক। যারা সংসদের বাইরে আছে, তাদের কথা বলার কোনো অধিকার নাই।”

রাজনীতি এর আরো খবর