শনিবার, ২৫ মে ২০১৯
logo
ঢাকার মিরপুরের ‘জঙ্গি আস্তানায়’ উদ্ধার তৎপরতা শুরু
প্রকাশ : ০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১১:০৭:৫৩
প্রিন্টঅ-অ+
ঢাকা, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, চাঁদপুর ওয়েব:  আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ঢাকার মিরপুরের দারুস সালাম এলাকায় ঘিরে রাখা ‘জঙ্গি আস্তানায়’ রাতে বড় ধরনের বিস্ফোরণের পর  সেখানে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছেন ফায়ার সার্ভিস ও র‌্যাব সদস্যরা।  এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে র‌্যাবের গণমাধ্যম‌ শাখার প্রধান মুফ‌তি মাহমুদ খান জানান, রাতের আঁধারে আমরা অভিযান ‘হাউস ক্লিয়ারিং রেল’ আপাতত স্থগিত করলাম। সকালে অভিযান আবার শুরু হবে।
 
বুধবার সকাল ৯টার কিছু আগে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগের উপ-পরিচালক দেবাশীষ বর্ধন বলেন, রাতে জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণের কারণে যে অগ্নিকাণ্ড হয়েছিল তা আড়াই থেকে তিন ঘণ্টার মধ্যে আমরা নিয়ন্ত্রণে আনি। কিন্তু তখন আস্তানায় আরও বিস্ফোরক ছিল কি না নিশ্চিত না হওয়ায় আমরা ভেতরে প্রবেশ করিনি। ওই সময় অভিযান স্থগিত করা হয়। এখন আমাদের তিনটি ইউনিট ভেতরে গিয়ে অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।
 
ছয় তলা ওই ভবনে থাকা সন্দেহভাজন জঙ্গি আবদুল্লাহ ও তার সঙ্গীদের কী ঘটেছে বুধবার সকাল পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। তবে তারা আত্মঘাতী হওয়ার জন্যই রাতে ওই বিস্ফোরণ ঘটায় বলে র‌্যাব কর্মকর্তাদের ধারণা।র‌্যাব সদস্যরা সকালে ওই ভবনে প্রবেশের আগে এ বাহিনীর আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ও ডগ স্কোয়াড ওই বাড়িতে প্রবেশ করেছে। বাহ্যিকভাবে দেখা যাচ্ছে বিস্ফোরণে ভবনের ওপরের অংশের বেশ ক্ষতি হয়েছে। ভবনের বিভিন্ন তলা সুইপিং করে আমাদের বিশেষায়িত দল পাঁচতলার ওই বাসায় প্রবেশ করবে। ওই জঙ্গিদের অবস্থা বা আসল পরিস্থিতি তখনই বোঝা যাবে।
 
এর আগে মঙ্গলবার রাত ১০টার কিছু আগে বিকট শব্দে পর পর পাঁচটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। এতে সেখানে আগুন ধরে যায়। তবে কিছুক্ষণ পর আগুন নিভে গেলেও প্রচুর কালো ধোঁয়া বেরোতে দেখা যায়। বাড়িটিতে রাখা রাসায়নিক বিস্ফোরণের কারণে আগুন লাগতে পারে বলে ধারণা করছে র‌্যাব। পরে মধ্যরাতে আরও কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটে।বিস্ফোরণের পরপর র‌্যাব বাড়িটি লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। বোমার স্প্লিন্টারে চার র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাহিনীটির গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান।
 
মুফতি মাহমুদ জানান, জঙ্গিদের সঙ্গে বিভিন্নভাবে সমঝোতা করার চেষ্টা করা হয়েছিল। তারা সময় চেয়েছিল। কিন্তু রাত ৯টা ৪৯ মিনিটে পাঁচটি বিস্ফোরণ  হয়। এতে র‌্যাবের চারজন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।ওই বাড়িতে অবস্থান করা জঙ্গি আবদুল্লাহর রাত আটটার মধ্যে আত্মসমর্পণ করার কথা থাকলেও এশার নামাজের জন্য সময় নেন তিনি। নামাজের পর তিনি আত্মসমর্পণ করবেন বলে র‌্যাবকে জানিয়েছিলেন। আবদুল্লাহর আত্মসমর্পণের জন্য যখন অপেক্ষা করছিল র‌্যাব, তখন ওই বিস্ফোরণ ঘটে।সোমবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে দারুস সালামের ২/৩/বি নম্বর বাড়িটি ঘিরে রেখেছে র‌্যাব। সকালের দিকে ওই বাড়ির অন্য সব বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়।
 
প্রসঙ্গত, টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা পৌরসভার মসিন্দা এলাকায় জঙ্গি আস্তানা থেকে সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটায় দুই জঙ্গিকে আটক করে র‌্যাব। আটককৃত দুই সহোদর হল মাসুদ ও খোকন। তবে ওই দুই সহোদর ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত থেকে মিরপুরের দারুস সালামের ওই বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব।অভিযানের এক পর্যায়ে গতকাল সকালে ওই বাসাতে অবস্থানরত তার বোনকে সে বের করে দেয়। পরে তাকে র‌্যাব এর হেফাজতে নেওয়া হয় এবং সে তখন জানায় যে, সে ঈদ এর ছুটিতে তার ভাই এর বাসায় এসেছে। 

জাতীয় এর আরো খবর