শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০
logo
স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন
প্রকাশ : ০২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:০৬:৩২
প্রিন্টঅ-অ+
জাতীয় ওয়েব

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তার নতুন কার্ড তুলে দেয়ার মাধ্যমে শুরু হলো জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম।
রোববার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্টকার্ড) বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
 
আঙুল ও চোখের আইরিশের ছাপ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী এই কার্ড গ্রহণ করেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ প্রধানমন্ত্রীকে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেন। এ সময় শেখ হাসিনা তার পুরোনো জাতীয় পরিচয়পত্র ফেরত দেন।
সোমবার রাজধানী ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কয়েকটি ওয়ার্ড ও দেশের সীমান্তবর্তী জেলা কুড়িগ্রামের বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ায় এটি বিতরণ শুরু হবে। পরে পর্যায়ক্রমে উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে এ কার্ড বিতরণ করা হবে।
স্মার্টকার্ড দেয়ার আগে নাগরিকদের কাছ থেকে নতুন করে ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এ সময় ভোটারদের হাতে থাকা বর্তমান লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র ফেরত নেয়া হবে।
এদিকে স্মার্টকার্ড বিতরণ-সংক্রান্ত তথ্য জানতে ১০৫ নম্বরে কল করার অনুরোধ জানিয়েছে এনআইডি উইং।
ইসির কর্মকর্তারা জানান, স্মার্টকার্ড নিরাপত্তা বজায় রাখতে ২৫টি আন্তর্জাতিক সার্টিফিকেশন এবং মান নিশ্চিত করা হয়েছে। স্মার্টকার্ড মধ্যে একজন নাগরিকের বিস্তারিত তথ্য থাকবে। এ কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ব্যাংকিং, টিআইএন, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাসপোর্টসহ ২২ ধরনের সেবা পাওয়া যাবে।
৮ বছর আগে আট কোটি ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৬৯৮ জন নাগরিকের মধ্যে প্রথম লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হয়েছিল।
বর্তমানে দেশে ভোটার সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি। তাদের সবাইকে ক্রমান্বয়ে স্মার্টকার্ড দেয়া হবে। প্রথমবার স্মার্টকার্ড বিনামূল্যে দেয়া হলেও পরে হারিয়ে গেলে, তথ্য সংশোধন বা পরিবর্তন করতে চাইলে নির্দিষ্ট ফি দিয়ে নতুন কার্ড সংগ্রহ করার সুযোগ রয়েছে।
স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ
কার্যক্রম উদ্বোধন
নিজস্ব প্রতিবেদক
নতুন বার্তা ডটকম
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তার নতুন কার্ড তুলে দেয়ার মাধ্যমে শুরু হলো জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম।
রোববার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্টকার্ড) বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
 
আঙুল ও চোখের আইরিশের ছাপ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী এই কার্ড গ্রহণ করেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ প্রধানমন্ত্রীকে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেন। এ সময় শেখ হাসিনা তার পুরোনো জাতীয় পরিচয়পত্র ফেরত দেন।
সোমবার রাজধানী ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কয়েকটি ওয়ার্ড ও দেশের সীমান্তবর্তী জেলা কুড়িগ্রামের বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ায় এটি বিতরণ শুরু হবে। পরে পর্যায়ক্রমে উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে এ কার্ড বিতরণ করা হবে।
স্মার্টকার্ড দেয়ার আগে নাগরিকদের কাছ থেকে নতুন করে ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এ সময় ভোটারদের হাতে থাকা বর্তমান লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র ফেরত নেয়া হবে।
এদিকে স্মার্টকার্ড বিতরণ-সংক্রান্ত তথ্য জানতে ১০৫ নম্বরে কল করার অনুরোধ জানিয়েছে এনআইডি উইং।
ইসির কর্মকর্তারা জানান, স্মার্টকার্ড নিরাপত্তা বজায় রাখতে ২৫টি আন্তর্জাতিক সার্টিফিকেশন এবং মান নিশ্চিত করা হয়েছে। স্মার্টকার্ড মধ্যে একজন নাগরিকের বিস্তারিত তথ্য থাকবে। এ কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ব্যাংকিং, টিআইএন, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাসপোর্টসহ ২২ ধরনের সেবা পাওয়া যাবে।
৮ বছর আগে আট কোটি ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৬৯৮ জন নাগরিকের মধ্যে প্রথম লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হয়েছিল।
বর্তমানে দেশে ভোটার সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি। তাদের সবাইকে ক্রমান্বয়ে স্মার্টকার্ড দেয়া হবে। প্রথমবার স্মার্টকার্ড বিনামূল্যে দেয়া হলেও পরে হারিয়ে গেলে, তথ্য সংশোধন বা পরিবর্তন করতে চাইলে নির্দিষ্ট ফি দিয়ে নতুন কার্ড সংগ্রহ করার সুযোগ রয়েছে।
 

জাতীয় এর আরো খবর