শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯
logo
জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় পীর-মাশায়েখদের নিয়ে সেল করতে হবে
প্রকাশ : ৩০ জুলাই, ২০১৬ ১৯:৪৬:১৩
প্রিন্টঅ-অ+
জাতীয় ওয়েব

ঢাকা: জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে দেশবরণ্যে পীর, মাশায়েখ, আলেম ও বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে আলাদা সেল গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। তারা বলেছেন, শুধু মাত্র ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে জঙ্গিবাদ বিরোধী প্রচারণা করলে হবে না, এর জন্য দেশের সব আলেম শ্রেণিকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।
শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-পরিষদের আয়োজনে ‘ইসলামের আলোকে জঙ্গি ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় আমাদের করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
তারা বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। ধর্মের নামে জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড ইসলাম সমর্থন করে না। তাই দেশের জনগণকে এ বিষয়ে সচেতন ও সতর্ক করতে দেশ বরণ্যে পীর, মাশায়েখ, আলেম ও বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে আলাদা সেল গঠন করতে হবে।
বক্তারা দাবি করেন, জঙ্গিবাদ ইস্যুটি বিভিন্ন কারণে বাংলাদেশে বেশি প্রচারণা পাচ্ছে কারণ এর পেছনে রাজনৈতিক যোগ বিয়োগ আছে। যারা রাজনৈতিকভাবে সুবিধা পাবে তারাই এর পেছনে ইন্ধন দিচ্ছে।
প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের সভাপতিত্বে গোল টেবিল আলোচনায় আরও অংশ নেন- আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য আখতারুজ্জামান, বাংলাদেশ তরিকত ফেড়ারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মেছবাহুর রহমান, শোলাকিয়া ঈদগাহের প্রধান ইমাম ফরিদউদ্দিন মাসউদ, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য খন্দকার গোলাম মাওলা নক্শবন্দী, ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আহসান উল্লাহ, ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।
প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করতে সারা দেশের মসজিদের নিয়মিত লিখিত খুতবা পাঠাচ্ছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। অবশ্য এভাবে খুতবা নির্ধারণ করে দেয়াকে অনেকে ‘মসজিদে সরকারি নিয়ন্ত্রণ আরোপ’ বলে মনে করছে।

জাতীয় এর আরো খবর