শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০
logo
নিরাপত্তা নিয়ে বাংলাদেশ-আমেরিকা সংলাপ
প্রকাশ : ১৭ জুন, ২০১৬ ০৯:৫২:২৪
প্রিন্টঅ-অ+
জাতীয় ওয়েব

ঢাকা: বাংলাদেশ ও আমেরিকার মধ্যে আগামী ২৩-২৪ জুন অংশীদারত্ব সংলাপ হতে যাচ্ছে। ওয়াশিংটন ডিসিতে অনুষ্ঠেয় এ সংলাপে আলোচনার শীর্ষে থাকছে নিরাপত্তা সহায়তা।
বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ার আগে আমেরিকার রাষ্ট্রদূত মার্শা ব্লুম বার্নিকাট বার্তা সংস্থা ইউএনবিকে বলেন, “যেকোনো সরকারের জন্য নিরাপত্তা এক নম্বর কাজ, আসন্ন অংশীদারত্ব সংলাপেও এটা শীর্ষ আলোচ্য বিষয় থাকবে।”
বেসরকারি নিরাপত্তা বাহিনীকে শক্তিশালী করার বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্র সংলাপে তুলবে কিনা জানতে চাইলে বার্নিকাট বলেন, নিরাপত্তা বাহিনী যতটা সম্ভব শক্তিশালী দেখতে চান তারা, যেখানে আইন অনুযায়ী স্থানীয় প্রহরীরা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করতে পারেন না।
মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, “বাংলাদেশ পুলিশ দুর্দান্ত পেশাদারি নিরাপত্তা দিচ্ছে মার্কিন কূটনীতিকদের। বাংলাদেশের কিছু বেসরকারি নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহারের পক্ষে দূতাবাস।”
ঢাকায় অন্যান্য কূটনৈতিক মিশন এবং হাজার স্থাপনার মতো মার্কিন দূতাবাসও নিরাপত্তার জন্য বেসরকারি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভরশীল। পঞ্চম অংশীদারত্ব সংলাপে বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্র উত্থাপন করবে।
ইউএসএআইডির কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নান হত্যার স্বচ্ছ তদন্ত দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। বার্নিকাট বলেন, “আমরা স্বচ্ছ তদন্ত দেখতে চাই এবং হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি দেখতে চাই।”
গত ২৫ এপ্রিল সমকামী অধিকারকর্মী জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয়কে বাসায় ঢুকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।
সংলাপে মানবাধিকার, সুশাসন, বহুজাতিক অপরাধ ও সাইবার নিরাপত্তা মতো বিষয়গুলো তুলবে যুক্তরাষ্ট্র এবং এসব চ্যালেঞ্জ কীভাবে মোকাবিলা করা যায় তা নিয়ে কাজ করবে দুই দেশ।
এ ছাড়া অর্থপাচার, জঙ্গি অর্থায়ন, অভিবাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সামর্থ্য উন্নয়ন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, পরিবেশ, শিক্ষা নিয়ে অংশীদারত্ব চুক্তি আলোচনা করা হবে। অর্থনীতির জন্য ইন্টারনেট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠায় উভয় দেশই এটাকে নিরাপদ দেখতে চায়।
যুক্তরাষ্ট্রের অরলান্ডোতে সমকামী নৈশক্লাবে হামলায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কাছে সমবেদনার বার্তা পাঠানোয় দেশটির সরকারকে গভীর নাড়া দিয়েছে। বার্নিকাট এর প্রশংসা করেন।

জাতীয় এর আরো খবর