মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯
logo
বিউটি স্লিপ
প্রকাশ : ২৬ মার্চ, ২০১৭ ১৩:০৮:২৩
প্রিন্টঅ-অ+
লাইফ ওয়েব
চাঁদপুর গ্ল্যামার বাড়াতে চান ? যৌবন ধরে রাখতে চান ? তা হলে ঘুমিয়ে পড়়ুন। স্বার্থপরের মতো ঘুমিয়ে পড়ুন। স্বামীর খাওয়া-দাওয়া, ছেলের স্কুল, শাশুড়ির ওষুধ-সাতপাঁচ না ভেবে ঘুমিয়ে পড়ুন। বয়ফ্রেন্ডের মেসেজের অপেক্ষা না করে ঘুমিয়ে পড়ুন দশটার মধ্যে। উঠবেন সেই সকাল ৭টায়। তার মধ্যে কী ঘটছে - কী ঘটছে না - পৃথিবীর মানুষ কোন গ্রহে পৌঁছল ? লন্ডনের রাস্তায় কে এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি গুলি চালিয়েছে ? রায়গঞ্জের স্কুলে এবার মাধ্যমিকে গণটোকাটুকি হয়েছে কিনা ? এসব নিয়ে আপনার মাথা ব্যথার কোনও প্রয়োজন নেই। নিরুত্তাপ। নিস্পৃহ ঘুমিয়ে নিন ৮ থেকে ৯ ঘণ্টা। গ্ল্যামার এমনিতেই চলে আসবে। এটাকেই বলে বিউটি স্লিপ। যে ঘুমে গ্ল্যামার আসে - সেটাই বিউটি স্লিপ। বিশেষজ্ঞদের মতে ৭ ঘণ্টার ঘুম হচ্ছে নর্মাল-রিচার্জ। স্পেশাল বিউটি প্যাকেজ নিতে গেলে প্রয়োজন ২ ঘণ্টা একস্ট্রা। সেটাই বিউটি স্লিপ। দুপুরে ঘুমোলেই বিউটি স্লিপ হয় এটা বাঙালির ভুল ধারণা।

দুপুরে বিউটি স্লিপের ৩টি গুণ :


১)  নিউ ইয়র্কের চর্মরোগবিশেষজ্ঞ প্যাট্রিশিয়া ওয়েক্সারের মত, ঘুমের সময় শরীর নিজে থেকেই মেরামতির কাজ করতে পারে। সেটিকে বলা হয় রিপেয়ারিং প্রসেস। ত্বকের বলিরেখা মেটাতে সাহায্য করে। কালচে ছোপ কমিয়ে ফেলে। চেহারায় অকালবার্ধক্যের ছাপ পড়ে না। অন্যদিকে রাতের পর রাত না ঘুমোলে হতে পারে উলটো এফেক্ট। কয়েকদিনের মধ্যেই চুপসে যেতে পারে চেহারা। মুখে কালচে ছোপ প্রকট হয়ে ওঠে, চোখের কোল ফুলে যায়, ডার্ক সার্কেলস্ ফুটে ওঠে।  

২) ঘুমের সময় সারাশরীরে সঠিকভাবে রক্ত চলাচল হতে থাকে। ঘুম থেকে উঠলে চকচকেভাবে লক্ষ্য করা যায়। বিকেলের হঠাৎ প্ল্যান তৈরি হলে, সাজগোজ নিয়ে অনেকেই বিচলিত হয়ে পড়ে। ভালো দেখানো নিয়ে যত চিন্তা শুরু হয়। এই অবস্থায় দুপুরে একটু ঘুমিয়ে নিলে সব সমস্যার অবশান। চেহারা এমনিতেই ঝকঝক করতে শুরু করবে।

৩)  অনেকসময় চোখের তলায় কালচেভাব দেখা যায়। বলা হয় ডার্ক সার্কেলস্। যে কারণে অনেকসময় মুখশ্রীর রূপে ঘাটতি দেখা দিতে পারে। যাঁরা খুব বই পড়েন, কম্পিউটারের সামনে বসে বেশি কাজ করেন, কিংবা ইনসমনিয়ায় আক্রান্ত, তাদের এই সমস্যা দেখা দিতে পারে। ভালো করে ঘুমোলে মিটে যেতে পারে সব সমস্যা।

লাইফস্টাইল এর আরো খবর