সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
logo
গরম পানিতে গোসলের ১০ সুফল
প্রকাশ : ২৯ অক্টোবর, ২০১৬ ১৫:৩৫:১২
প্রিন্টঅ-অ+
লাইফ ওয়েব
চাঁদপুর: কনকনে শীতে গরম জল ছাড়া স্নান! কল্পনারও বাইরে। কেউ কেউ আছেন, যাঁরা সারাবছরই গরম জলে স্নান করতে অভ্যস্ত। এতে নাকি পেট গরম হয়, আবার ঠান্ডালাগাভাবও কাটতে চায় না। কিন্তু গরম জলে স্নান করলে অনেক রকম উপকারও পেতে পারেন আপনি। কী কী তা জেনে নিন -

পেশি ও গাঁটের ব্যথার উপশম

গরম জলে স্নান করলে পেশি ও হাড়ের ব্যথা কমে যায়। পেশির ক্লান্তি দূর করে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। গাঁটের ব্যাথা ও বাতের ব্যথার থেকে রক্ষা পেতে গরম জলে স্নান করলে আরাম মেলে।

সঠিক ঘুম

দিনের শেষে গরম জলে স্নান আপনাকে দেবে শান্তির ঘুম। গরম জলে স্নানের পর শরীরের তারমাত্রা বাড়ে। সেই সঙ্গে পেশির ক্লান্তি দূর হয়। তা যে শুধু শারীরিকভাবে আরামদায়ক হয় তা নয়, মানসিকভাবেও রিল্যাক্স থাকতে সাহায্য করে। তাই সারাদিনের নানা চাপ কাটিয়ে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে গরম জলে স্নান করে নিতেই পারেন।

মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়ায়

মাথায় তেল ম্যাসাজ করে গরম জলে স্নান আপনাকে দেবে আরাম। শারীরিক ও মানসিক দু-ক্ষেত্রেই। তার ফলে আপনি বেশ ফুরফুরে বোধ করতে পারবেন। সব কাজে মন দিতে পারবেন। বিরক্তিভাব দূর হবে।

ত্বক পরিষ্কার রাখে

বাইরের ধুলোবালি ত্বকের উপর আস্তরণ তৈরি করে। গরম জলে রোমকূপ থেকে সেই সমস্ত ধূলিকণা সহজেই বেড়িয়ে আসে।    

রেগুলার শরীরচর্চা করার আগে

সকালে এক্সারসাইজ় শুরু করার আগে গরম জলে শরীর গরম করে নিন। এতে পেশিগুলি সজাগ হয়ে উঠবে। রক্ত সংঞ্চালন বাড়বে।

মানসিক চিন্তা দূর করে

কাজ থেকে বাড়ি ফেরার পর অস্থির বোধ করাটাই স্বাভাবিক। এমন সময় সেই অস্থিরতা কাটাতে পারে গরম জলে স্নান।

উচ্চ রক্তচাপ কমায়

অবাক হলেও এটাই সত্যি। গবেষকরা প্রমাণ করে দিয়েছেন, নিয়মিত গরম জলে স্নান করলে ধীরে ধীরে কমে যেতে পারে উচ্চ রক্তচাপ।

সারাদিন ফিট থাকতে সাহায্য করে

ক্লান্ত লাগছে। ক্ষণে ক্ষণে ঘুম পাচ্ছে। এই ক্লান্তিকে দূর করতে গ্যাসে চাপিয়ে দিন জল। হালকা গরম হয়ে এলে সেই জল স্নানটা সেরে নিন। স্নানের আগে সারা গায়ে তেলও মালিশ করে নিতে পারে। একেবারে ঝরেঝরে হয়ে উঠবেন।

কাঁধ ও ঘাড়ের ট্রিটমেন্ট

অফিসে একটানা চেয়ারে বসে থাকলে ঘাড়ে যন্ত্রণা শুরু হতে পারে। বা খারাপ ভঙ্গিতে ঘুমানোর কারণেও হতে পারে গায়ে ব্যথা। সেসবই কিন্তু আপনার দিনটা খারাপ করে তুলতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে হালকা গরম জলে শাওয়ার নিন।

সর্দি কাশি থেকে মুক্তি

গরম জলে স্নান আপনাকে দিতে পারে কাশি, কফ ও গলা ব্যথা থেকে মুক্তি।