মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০
logo
অফিসে ঢুকেই ঘুম পায়? করণীয়
প্রকাশ : ৩০ জুন, ২০১৬ ১৫:৫৬:০৪
প্রিন্টঅ-অ+
লাইফ ওয়েব

চাঁদপুর: রাতে ঠিক যেমন আট থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুমনোর অভ্যেস, তেমনই ঘুমিয়েছেন । কিন্তু সকালে কিছুতেই চটকা ভাঙছে না । ক্লান্তি গ্রাস করেছে । আবার ডাকছে বিছানা, বালিশ, কোলবালিশ... কিছুতেই জুত পাচ্ছেন না । অফিসে গিয়েও লেপটে রয়েছে ঘুম জড়ানো চোখ । কাজে মন বসছে না । "তুক" শুনতে "তাক" শুনছেন । A-এর বদলে Z লিখে বসের চক্ষুশূল হচ্ছেন । ...আর মাঝে মধ্যেই টলে পড়ছেন কিবোর্ডের উপর । খান আটেক কফি বা চা ঠেলা না দিলে আপনি কুম্ভকর্ণ হয়ে পড়ছেন যেখানে সেখানে । হাইলি প্রবলেম্যাটিক ! রাতে ঘুমের পরও কেন এমন ক্লান্তি ?
১। ডাক্তারি পরিভাষায় স্লিপ অ্যাপনিয়া নামের অসুখ এর জন্য দায়ী । এই অসুখে প্রবল নাক ডাকার সঙ্গে শ্বাসবন্ধ হয়ে মাঝে মধ্যে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে । ভাঙা ভাঙা ঘুমের শিকার হতে হয় । ফলে কম ঘুম গোটা দিনের জন্য আপনাকে ক্লান্তিতে ভরিয়ে তোলে  ৷
 
২। ওবেসিটি থাকলে বা শরীরের মেদ জমলেও সারাদিন ঘুম পায় । ক্লান্তি চলে আসে ।
 
৩। টেনশন বা ডিপ্রেশন অনিদ্রা এনে দিতে পারে ।আর যদি সেই সময় ঘুমের ওষুধ হয় নিত্য দিনের সঙ্গী, তা হলে জানবেন ওধুষের প্রভাব আপনাকে ঘুমের দেশে যাওয়ার জন্য বারবার হাতছানি দেবে।
 
৪। দিনভর ক্লান্ত থাকার আরও একটা কারণ হল মদ্যপান । অ্যালকোহল চেতনাকে বশ করে নেয় । ফলে প্রচণ্ড ঘুম পায় । রাতে পুরোপুরি সেই ঘুম হয়ে ওঠে না । তাই সকালে ঘুম ভাঙার পরও গা ম্যাজম্যাজ করে । মাথায় ঝিমঝিমভাব থাকে । এককথায় যাকে বলে হ্যাঙ্গওভার !
 
৫। অতিরিক্ত কাজের চাপ, স্ট্রেস থেকেও ক্লান্তিভাবে আসতে পারে । তাই ঠিকমতো ঘুমিয়েও আপনার ঘুম ঘুমভাব যায় না ।
 
এত ঘুম থাকলে বাকি কাজকর্ম হবে কীভাবে ? কীভাবে ঘুমপরীকে বলবেন, “এখন আসিস না !”

লাইফস্টাইল এর আরো খবর