রোববার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯
logo
ট্যাম্পাকো অগ্নিকাণ্ডে মালিকসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা
প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:০৮:৫৪
প্রিন্টঅ-অ+
আইন ওয়েব

গাজীপুর: টঙ্গীর প‌্যাকেজিং কারখানা ট‌্যাম্পাকো ফয়েলসে অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনায় এর মালিকসহ আট কর্মকর্তাকে আসামি করে একটি মামলা হয়েছে।
নিহত শ্রমিক মোহাম্মদ হোসাইন জুয়েলের বাবা আব্দুল কাদের পাটোয়ারী রোববার রাতে এই মামলাটি করেন বলে টঙ্গী থানার ওসি মো. ফিরোজ তালুকদার জানিয়েছেন।
সিলেটে বিএনপির সাবেক সংসদ সদস‌্য সৈয়দ মকবুল হোসেনের এই কারখানায় শনিবার বয়লার বিস্ফোরণের পর আগুন লেগে অন্তত ৩১ জন নিহত হয়েছেন।
পুলিশ কর্মকর্তা ফিরোজ বলেন, “ঘটনার পর থেকে কারখানার চেয়ারম্যান (মকবুল) পলাতক রয়েছেন। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার বা আটক করা যায়নি।”
মামলায় কারখানা মালিক মকবুলের স্ত্রী পারভিনকেও আসামি করা হয়েছে। অন‌্য আসামিরা হলেন কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভির আহমেদ, মহাব‌্যবস্থাপক সফিকুর রহমান, ব‌্যবস্থাপক (প্রশাসন) মনির হোসেন, ব‌্যবস্থাপক (সার্বিক) সমির আহমেদ, ব‌্যবস্থাপক হানিফ ও উপ সহকারী পরিচালক আলমগীর হোসেন।
মামলায় আসামির তালিকায় অজ্ঞাত পরিচয়ের আরও কয়েকজন রয়েছেন বলে পুলিশ জানায়।
এই মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কী অভিযোগ আনা হয়েছে, তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি।
তাজরীন ফ‌্যাশনস ও রানা প্লাজা ধসে প্রাণহানির ঘটনার মামলায় অবহেলাজনিত হত‌্যার অভিযোগ আনা হয়েছিল কারখানা ও ভবন মালিকের বিরুদ্ধে।
সিপিবিসহ বাম দল শ্রমিক সংগঠনগুলো ট‌্যাম্পাকোর ঘটনায়ও অবহেলাজনিত মৃত‌্যুর কারণে কারখানা মালিকের বিরুদ্ধে হত‌্যামামলা দায়ের এবং তাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে আসছে।
এজন‌্য কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের গাফিলতিকে দায়ী করে সংশ্লিষ্টদের গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবিও জানান সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।
কলকারখানা পরিদর্শন অধিদপ্তর ইতোমধ‌্যে অগ্নিকাণ্ড তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে। এছাড়া ফায়ারা সার্ভিস ও জেলা প্রশাসনও আলাদা দুটি তদন্ত কমিটি করেছে।
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কারও গাফিলতির প্রমাণ মিললে তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব‌্যবস্থা নেওয়া হবে।
 

আইন আদালত এর আরো খবর