বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০
logo
ব্যয় বেড়েছে আইন ও বিচার বিভাগে
প্রকাশ : ০৩ জুন, ২০১৬ ১৩:৫৩:৫৫
প্রিন্টঅ-অ+
আইন ওয়েব

ঢাকা : চলতি অর্থবছরের বাজেট অধিবেশনে আইন ও বিচার বিভাগের অনুন্নয়ন খাতে ব্যয় ১ হাজার ৪৬ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা, উন্নয়ন ব্যয় ৪৭৪ কোটি ৪৯ লক্ষ টাকা, রাজস্ব ব্যয় ১ হাজার ২৪ কোটি ৮৮ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, মূলধন ব্যয় ৪৯৬ কোটি ৩৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এই খাতে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ৫২১ কোটি ২৪ লক্ষ টাকা। ফলে চলতি বাজেটে এই খাতে ব্যয়ের পরিমাণ গত অর্থবছরের তুলনায় ১.২৪ ভাগ বেশি।
বৃহস্পতিবার ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশনে এই বাজেট পরিমাণ সংসদে উপস্থাপন করা হয়। সরকারের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এই বাজেট অধিবেশন সংসদে উপস্থাপন করেন।
জনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তার জন্য আইন ও বিচার বিভাগ অনুন্নয়ন রাজস্ব ১ হাজার ২৩ কোটি টাকা এবং অনুন্নয়ন মূলধন ১৯ কোটি টাকা ধরা হয়েছে। অন্যদিকে সুপ্রিমকোর্টের অনুন্নয়ন রাজস্ব ১৪৫ কোটি টাকা এবং অনুন্নয়ন মূলধন ১০ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
এদিকে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত সংসদে অষ্টম অধ্যায়ের সুশাসন ও প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়নের বাজেট (২০১৬-১৭) বক্তৃতায় বলেন, ‘মামলা নিষ্পত্তি জোরদারকরণে সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে সকল জেলায় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণ এবং ২৮টি জেলা জজ আদালত ভবনের উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ কাজ চলমান রয়েছে। মামলার দীর্ঘসূত্রিতা, হয়রানি ও অহেতুক কালক্ষেপণ লাঘবে ‘বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি’ ইতোমধ্যে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। একই সাথে জেলা লিগ্যাল এইড অফিসারকে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তিতে মামলা নিষ্পত্তির ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। আশা করছি, এতে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি ব্যবস্থা প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পাবে। এছাড়া, তথ্য ও যোগোযোগ প্রযুক্তি আইনের অধীনে সংঘটিত অপরাধের বিচারের উদ্দেশ্যে একটি ‘সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল’ গঠন করা হয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আইনি সেবায় গণমানুষের প্রবেশাধিকার বাড়াতে নানা কার্যক্রমও চলছে। একদিকে, ন্যাশনাল লিগ্যাল এইড অর্গানাইজেশনের আওতায় একটি সেল গঠনের মাধ্যমে শ্রমিকদের আইনি পরামর্শ ও সেবা প্রদান করা হচ্ছে। পাশাপাশি দক্ষ ও অভিজ্ঞ আইনজীবীদের এ কার্যক্রমে আকৃষ্ট করতে প্যানেল আইনজীবীদের ফি বৃদ্ধি করা হয়েছে।’ 

আইন আদালত এর আরো খবর