সোমবার, ২৫ মে ২০২০
logo
এমপিরা বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি হতে পারবেন না: হাইকোর্ট
প্রকাশ : ০১ জুন, ২০১৬ ১৬:৪৩:০১
প্রিন্টঅ-অ+
আইন ওয়েব

ঢাকা: এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হিসেবে সংসদ সদস্যরা (এমপি) দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।
বুধবার এ সংক্রান্ত রুলের শুনানি শেষে বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
 
সেই সঙ্গে ভিকারুননেসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিশেষ ব্যবস্থাপনা কমিটি বাতিল ঘোষণা করেছেন আদালত। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।
 
আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ।
 
এর আগে স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি পদে সংসদ সদস্যদের থাকা কেনো অবৈধ ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে ১৩ এপ্রিল রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে নির্বাচন ছাড়া কমিটি গঠন কেনো অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয় রুলে।
 
শিক্ষা সচিব, ঢাকা শিক্ষা বোডের চেয়ারম্যান, কলেজ শিক্ষা বোর্ডের পরিদর্শক, ভিকারুননেসা স্কুলের অধ্যক্ষ ও সভাপতি রাশেদ খান মেননকে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছিল।
 
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৫ ধারা অনুযায়ী স্থানীয় সংসদ সদস্যরা ৪টি প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি হিসেবে থাকতে পারবেন। আর ৫০ ধারায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন না দিয়ে বিশেষ ম্যানেজিং কমিটি গঠনের বিধান রয়েছে।
 
এ দুটি ধারা সংবিধানের ৭, ২৬, ২৭, ২৮, ৩১, ৬৫ এর সংঙ্গে সাংঘর্ষিক দাবি করে তা বাতিল চেয়ে অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ এর আগে হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করেন। সেই রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে আদালত এ রুল জারি করেছিলেন। এ দুটি ধারা কেনো অবৈধ ঘোষণা করা হবে না রুলে তাও জানতে চেয়েছিলেন আদালত।
 
রিটে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৫ ও ৫০ ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হয়।
 
এতে উল্লেখ করা হয়, সংসদ সদস্যরা আইন প্রণয়ন করবেন। কিন্তু তাদের এসব প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

আইন আদালত এর আরো খবর