শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০
logo
বিশ্বভারতীতে ছাত্রী ধর্ষণের দায়ে বাংলাদেশি ছাত্রের যাবজ্জীবন
প্রকাশ : ০৩ জুন, ২০১৬ ১৩:৫৫:৫৬
প্রিন্টঅ-অ+
আন্তর্জাতিক ওয়েব

দিল্লি: বাংলাদেশ থেকে পড়তে যাওয়া বিশ্বভারতীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে মুহম্মদ সফিকুল ইসলাম নামের এক বাংলাদেশি ছাত্রকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। এ ছাড়া নির্যাতিতাকে ক্ষতিপূরণ বাবদ রাজ্য সরকারকে ৫ লক্ষ টাকা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
বৃহস্পতিবার এই রায় ঘোষণা করেন সিউড়ি জেলা আদালতের দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা জজ মহানন্দ দাস। মামলা শুরু হওয়ার দেড় বছরের মাথায় এ রায় দেয়া হলো।
মুহম্মদ সফিকুল ইসলাম বিশ্বভারতীতেই অধ্যয়ন করতেন।
 
নির্যাতিত ছাত্রীর অভিযোগ, নিজের দেশের সিনিয়র ছাত্র সফিকুলের কাছে পড়াশোনার ব্যাপারে জানতে গেলে ২০১৪ সালের ৪ আগস্ট তাকে জোর করে ধর্ষণ করে সফিকুল।
এরপর মোবাইলের ক্যামেরায় অশ্লীল মুহূর্তের ছবি তুলে রেখে ব্ল্যাকমেল করে সফিকুল তাকে ধারাবাহিকভাবে ধর্ষণ করে গেছে বলে নির্যাতিতার অভিযোগ। সেই সময় নির্যাতিত ছাত্রীর বয়স ছিল ১৭ বছর।  
 
বিশ্বভারতীর উচ্চমাধ্যমিক স্তরের ওই ছাত্রী সফিকুলের বিরুদ্ধে বোলপুর থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করে ২০১৪ সালের ৬ ডিসেম্বর। সফিকুলকে পুলিশ গ্রেফতার করে।  
 
সফিকুলের আইনজীবী সোমনাথ মুখার্জি জানান, তার মক্কেলের বিরুদ্ধে পকসো আইনের ৩ এবং ৪ ধারায় পুলিস মামলা রুজু করে। ১৯ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়।
সফিকুলের আইনজীবীর বক্তব্য, তার মক্কেলকে ফাঁসানো হয়েছে।  
 
জেলা আদালতের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তারা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হবেন বলে সফিকুলের আইনজীবী জানান।  
 
আদালত সূত্রে জানা গেছে, সফিকুল বাংলাদেশের নাগরিক হওয়ায় তার এই সাজার বিষয়টি আগে বাংলাদেশ হাইকমিশনারকে জানানো হবে। -সংবাদমাধ্যম

আন্তর্জাতিক এর আরো খবর