বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯
logo
‘মক্কার দিকে’ ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছিল হুতিরা
প্রকাশ : ২৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০৯:৪১:৫৫
প্রিন্টঅ-অ+
হাইলাইটস ওয়েব
সৌদি আরবের মক্কা শহরের দিকে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছিল বলে এক বিবৃতিতে দাবি করেছে দেশটির গৃহযুদ্ধে হস্তক্ষেপ করা সৌদি আরব নেতৃত্বধীন জোট।

বৃহস্পতিবার মক্কার প্রায় ৬৫ কিলোমিটার দূর থেকে ছোড়া ওই ক্ষেপণাস্ত্র কোনো ক্ষয়ক্ষতি করতে পারার আগেই জোট বাহিনীগুলো সেটি ধ্বংস করেছে বলে শুক্রবার ওই বিবৃতির বরাত দিয়ে জানিয়েছে রয়টার্স।

মক্কা নগরীকে পবিত্র নগরী হিসেবে বিবেচনা করে থাকে মুসলমানরা।

বুরকান-১ নামে একটি ব্যালাস্টিক ক্ষেপনাস্ত্র সৌদি আরবের দিকে তাক করার কথা হুতি বিদ্রোহীরা নিজেদের অফিসিয়াল নিউজ এজেন্সির মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে স্বীকার করলেও তারা বলছে, ক্ষেপণাস্ত্রটিকে তারা মক্কা নয়, বরং জেদ্দায় সৌদির ব্যস্ততম বাদশাহ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ছুড়েছিলেন।

বিদ্রোহী হুতিরা ২০১৫ সালের মার্চে ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও জেনারেল পিপলস কংগ্রেস পার্টি জোটের প্রধান আলি আব্দুল্লাহ সালেহর অনুগত সেনাদের সমর্থনে ইয়েমেনের অধিকাংশ এলাকা দখল করে নিয়ে দেশটির তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদিকে ক্ষমতাচ্যুত করে।

হাদিকে ক্ষমতায় ফেরানোর লক্ষ্য নিয়ে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট বাহিনী ইয়েমেনে হস্তক্ষেপ করে। তারপর থেকে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী ও হাদি অনুগতদের সঙ্গে সালেহ অনুগত সেনা ও হুতি বিদ্রোহীদের লড়াই শুরু হয়।

বর্তমানে রাজধানী সানাসহ উত্তরাঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করছে সালেহ অনুগত বাহিনী।

হুতি বিদ্রোহীদের সমর্থন দেওয়ার জন্য ইরানের দিকে আঙুল তুলেছেন আরব জোট বাহিনীর সদস্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ বিন জায়েদ।

উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদের এই সদস্য বলেন, “ইরানি শাসকচক্র একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে সমর্থন দিচ্ছে, যারা মক্কায় ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। এটাই কি তাদের (ইরানের) ইসলামিক শাসনতন্ত্র, যা তারা দাবি করে।”
 

হাইলাইটস এর আরো খবর