মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০
logo
হাঁও মাঁও খাও, চরিত্রের গন্ধ পাও!
প্রকাশ : ০৪ জুলাই, ২০১৬ ০৯:২৯:০৫
প্রিন্টঅ-অ+
বিনোদন ওয়েব

ঢাকা: কবির সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিলো তার। ভাগ্যের ফেরে বিয়ে হয় কনস্টেবলের সাথে। তাই বলে নিয়তিকে অস্বীকার করেনা সে। স্বামীর প্রতি অগাধ ভালোবাসা জমে ওঠে। কিন্তু ভালোবাসা মুখ থুবড়ে পড়ে। মারা যায় কনস্টেবল। স্বামীর বন্ধুদের যাতায়াত বাড়ে ঘরে, ননদের কূট কথাও বাড়তে থাকে। কবির দিকেই ফের মুখ ফেরায় সে। কিন্তু কনস্টেবলকে ভোলা যায়না আর। মানসিক ভারসাম্য হারাতে থাকে সে।
এমন গল্পের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ভাবনা। আহসানুল হাসানের পরিচালনায় ‘ঘাসফড়িং’ নাটকটি প্রচারিত হবে এস এ টিভিতে। কথা হচ্ছিলো ভাবনার সঙ্গে। এবারের ঈদে বেশ কিছু কাজ করেছেন তিনি। ছয়টি এক ঘন্টা দুটি ধারবাহিক মিলে ঈদের টিভি পর্দায় চোখ মেললেই ভাবনাকে দেখা যাবে।
নিজের প্রথম চলচ্চিত্র ‘ভয়ংকর সুন্দর’ মুক্তি পাবে এ বছরই। তাই ফের নাটকে ফেরা। বললেন, প্রত্যেকটি চরিত্রই আমার খুব পছন্দ হয়েছে। আনন্দের সঙ্গে কাজ করেছি তাই।’
পছন্দ হওয়ার মতোই চরিত্র। প্রায় ২২হাজার ফিট ওপরে বান্দরবানের পাহাড়ে ভাবনা যখন এক মুরং মেয়ে। তখন ‍গুলি খেয়ে এক সন্ত্রাসীকে পড়ে থাকতে দেখা গেলো ঝর্নার কাছে। তিনি অনিমেষ আইচ। শতাব্দী ওয়াদুদও আছেন এ নাটকে। ভাবনাকে শিখতে হয়েছে মুরংদের উচ্চারণের বাংলা। মুরং কন্যা উমা সিং নাটক শুরুর আগে দু’একদিন এ প্রশিক্ষন দেন তাকে।
ভাবনা বললেন, এ নাটকে কাজ করার জন্য হাতের অন্য একটি কাজ ছেড়ে দিয়েছিলাম। দু’তিন দিন টানা চরিত্রটি আত্মস্থ করেছি। আমার সঙ্গে ইনোসেন্ট ক্যারেক্টারগুলো খুব যায়। তাছাড়া নাকটাও একু বোঁচা, গালটাও ফোলাফোলা, তাই মুরং মেয়ের চরিত্রে আমাকে নেয়া হয়েছে। গতকাল মানিকগঞ্জে নাটকটির শেষ শুটিং করে আসলাম।’
আজাদ কালামের পরিচালনায় পরিচালনায় ‘ক্যাকটাস’ নামের এ নাটকটি প্রচারিত হবে আর টিভিতে।
শুধু মুরং মেয়েই নয়, হারিয়ে যাওয়া বোবা মেয়ের চরিত্রেও দেখা যাবে ভাবনাকে। জাহিদ হাসানের সঙ্গে এ নাটকটিতে তাদের দেখা যাবে বাবা-সন্তানের মতো এক অলিখিত সম্পর্কে। দুই যোগ দুই সমান তিন নাটকটি নির্মাণ করেছেন অনিমেষ আইচ। নাটকটি প্রচারিত হবে ইটিভিতে।
অনিমেষের সঙ্গে এখানেই শেষ নয়, তার নির্মাণে ‘মোহনী’ নাটকে ভাবনাকে দেখা যাবে অন্ত:সত্বা অভিনেত্রীর চরিত্রে। এটি প্রচারিত হবে এশিয়ান টিভিতে। দেশ টিভির জন্য ইরেশ যাকেরের বিপরীতে ভাবনাকে অনিমেষ সাজিয়েছেন হিন্দু বৌয়ের চরিত্রে।
ধারাবাহিক নাটকও নির্মাণ করেছেন অনিমেষ। সেখানে ভাবনার চরিত্র মেম্বারের ক্ষ্যাপাটে মেয়ে। এনটিভিতে প্রচারিতব্য এ নাটকটির নাম ‘অশ্বডিম্ব’।
এছাড়া, মাসুদ সেজানের কমেডি স্যাটায়ার ধারাবাহিক ‘ওয়াও ফ্যান্টাসী’ নাটকে ভাবনাকে দেখা যাবে চঞ্চল চৌধুরীর সঙ্গে।
আরও আছে, অনন্য ইমনের এ নাটকের নাম ‘টার্নিং পয়েন্ট’। ইরফান সাজ্জাদের বিপরীতে তাকে দেখা যাবে রহস্যময় এক ক্যারেক্টারে।
মীর সাব্বিরের নাটকে এ প্রথম কাজ করলেন ভাবনা। ‘বাপ বেটা দিওয়ানা’ নামে এ নাটকটি প্রচারিত হবে আরটিভিতে। বাপ বেটা দুজনই ভাবনার প্রেমে পড়ে। বুঝুর চরিত্রের অবস্থা। ভাবনা একটু দম নিলেন। ‘লঞ্চে নাচতেও হয়েছে নাটকটা করতে গিয়ে। খুব ফানি ক্যারেক্টার ছিলো।’
জাহিদ হাসানের সঙ্গে আরও দুটি নাটক করেছেন তিনি। একটি অঞ্জন আইচের ড. জাহিদ হাসান ও অন্যটি শামিমা শাম্মির ‘রক্তড্রোন’।
সবমিলে ঈদ নাটকের মধ্য দিয়ে নাটকে কিছুটা হারিয়ে যাওয়া ভাবনার তুমুল ফেরা হলো। ফিল্ম না নাটক তাতে এখন আর কিছু ভাবছেন না তিনি। ভালো চরিত্র পেলেই ভাবনা বরাবরের মতো রাক্ষসী...হাঁও মাঁও খাও, চরিত্রের গন্ধ পাও!

বিনোদন এর আরো খবর