মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
logo
নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন গাইবান্ধার ডিসি
প্রকাশ : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৫:০৯:১৭
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব
গাইবান্ধা: সাঁওতালদের ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবেদনে ‘বাঙালী দুষ্কৃতিকারী’ শব্দ ব্যবহার করায় আদালতের তলবে হাইকোর্টে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদ।

সোমবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথের বেঞ্চে হাজির হয়ে আবদুস সামাদ লিখিতভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। এ বিষয়ে দুপুরের পর আদেশ দেবেন আদালত।

এর আগে গত ৬ ডিসেম্বর ‘বাঙালি’ শব্দের আগে ‘দুষ্কৃতকারী’ শব্দ ব্যবহারের ব্যাখ্যা দিতে গাইবান্ধার ডিসিকে তলব করেন হাইকোর্ট। তাকে সশরীরে হাজির হয়ে ওই শব্দ প্রয়োগের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। সাঁওতালদের নিয়ে জারি করা রুলের শুনানিকালে আদালত এই  আদেশ দেন।

সেদিন আদালত বলেন, ‘গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক বাঙালিদের দুষ্কৃতকারী বলেছে। একাত্তরের আগে এটা মানা যেত। ফাইজলামির একটা সীমা থাকা উচিত।’ এরপর আদালত গাইবান্ধার ডিসিকে তলব করেন।

তার আগে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু বলেন, ‘সাঁওতালদের ওপর হামলার ঘটনায় ৩০ নভেম্বর গাইবান্ধার জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে একটি প্রতিবেদন দেয়া হয়।’

প্রতিবেদনের এক জায়গায় ডিসি বলেন, ‘সাঁওতাল ও কিছু বাঙালি দুষ্কৃতকারী চিনিকলে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।’

সেদিন আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জেড আই খান পান্না, এ এম আমিনউদ্দিন। চিনিকল কর্তৃপক্ষের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার এম এ মাসুম ও ব্যারিস্টার দীপা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।
 

জেলা এর আরো খবর