শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
logo
সিংড়ায় মা ও মেয়েকে কুপিয়ে জখম
প্রকাশ : ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৬:২৮:২৪
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব
নাটোর: নাটোরের সিংড়ায় বাড়িতে ঢুকে মা ও ২ মেয়েকে কুপিয়ে জখম করে বাড়ির মালামাল লুটে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার মধ্য রাতে উপজেলার একশিং তারাই গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে মা কাজল রেখা বেগম এবং মেয়ে মিমিকে নাটোর সদর হাসপাতালে এবং আশঙ্কাজনক অবস্থায় অপর মেয়ে আয়েশা খাতুনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও আহতরা জানান, শনিবার মধ্য রাতে সিংড়া উপজেলার একশিং তাড়াই গ্রামের  ইউনুস আলীর বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে সশস্ত্র ৬ ব্যক্তি। এসময়  এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে ইউনুস আলী স্ত্রী কাজল রেখা বেগম (৩৫) এবং দুই মেয়ে মিমি খাতুন (১২) ও আয়েশা খাতুন (১৬)। এসময় কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে নগদ টাকা, চাল-ডাল সহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে চলে যায় তারা। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।


নাটোর সদর হাসপাতালে আহত কাজল রেখা বেগম জানান, শনিবার মধ্যরাতে ৬-৭জনের সশস্ত্র একদল অতর্কিতভাবে বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। এসময় দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। এসময় প্রতিবেশীরা তাদের চিৎকারে ছুটে আসলে বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায় তারা।

এদিকে একটি সূত্র জানায়, সম্প্রতি বরগ্রামে সাবেক ইউপি সদস্য মোজাফ্ফর হোসেন মোজাই ডাকাত ও তার ভাই হাসেন আলীকে কুপিয়ে হত্যা করে একই এলাকার ইউনুস আলী ও তার সমর্থকরা। গত কয়েক দিন আগে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতারও হয় ইউপি সদস্য ইউনুস ও তার ভাই। ওই ঘটনার জের ধরেই ডাবল হত্যা মামলার প্রধান আসামী ইউনুস আলীর বাড়িতে হামলা চালায় মোজাই ডাকাতের ভাই মোবারক ও তার সমর্থকরা।

এ বিষয়ে সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত নাসির উদ্দিন মন্ডল জানান, ডাবল হত্যা মামলার  বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তারপরও কোনো অভিযোগ আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা এর আরো খবর