রোববার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯
logo
হবিগঞ্জে পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৫
প্রকাশ : ১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৩৩:৪৮
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় স্কুল সরকারিকরণের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বুধবার দুপুরে দুই শিক্ষকের মুক্তি চেয়ে থানা ভাঙচুর করেছে। এ  সময় পুলিশের গুলিতে শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ীসহ পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।
আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা জানান, বাহুবল উপজেলার দীননাথ ইনস্টিটিউশন মডেল হাইস্কুল সরকারিকরণ ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সামছুন্নাহার পারভীনের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ এনে তার অপসারণ দাবিতে বুধবার বেলা ১২টার দিকে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় ঘেরাও ও অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।
কর্মসূচি চলাকালে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সরিয়ে দিতে চাইলে পুলিশের সঙ্গে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে পুলিশ দুই শিক্ষককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে থানায় ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভাঙচুর চালায়।
এ পরিস্থিতিতে পুলিশ গুলি করলে শিক্ষার্থীসহ পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ১০ম শ্রেণির ছাত্র আবদুর রহমান, বাহুবল বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজল তালুকদার ও আবদুল মতিন নামের এক পথচারীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহত অন্য দুজনকে বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে।
হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় জানান, প্রাথমিকভাবে স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি নিষ্পত্তি করা হয়েছে। আটক শিক্ষকদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। শিক্ষকদের অন্যায়ভাবে আটক করায় বাহুবল মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দেলোয়ার হোসেনকে বরখাস্ত করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় তাকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
দীননাথ ইনস্টিটিউশন মডেল হাই স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি অলিউর রহমান অলি জানান, সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়বিহীন উপজেলায় একটি করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের উদ্যোগ নেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।
বাছাই কর্তৃপক্ষের প্রাথমিক তালিকায় বাহুবল উপজেলায় দীননাথ ইনস্টিটিউশন মডেল হাই স্কুলের নাম ছিল। কিন্তু সম্প্রতি মোটা অঙ্কের ঘুষ গ্রহণের মাধ্যমে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সামছুন্নাহার পারভীন ঊর্ধ্বতন মহলে তদবির করে উপজেলার সীমান্তবর্তী পুটিজুরী এসসি উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ প্রক্রিয়ায় নিয়ে আসেন।
কয়েকদিন আগে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর উপজেলার সেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য চাইলে সামছুন্নাহার পারভীন পুটিজুরী এসসি উচ্চ বিদ্যালয়ের পক্ষে অযাচিত সাফাই দিয়ে প্রতিবেদন পাঠান।
এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পর দীননাথ ইনস্টিটিউশনসহ উপজেলার অন্যান্য মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য, ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।
তারা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সামছুন্নাহার পারভীনের ঘুষ-দুর্নীতির প্রতিবাদে বুধবার বেলা ১২টায় মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় ঘেরাও ও অবস্থান ধর্মঘট পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। কর্মসূচি অনুযায়ী কয়েক হাজার ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবক ব্যানার ও ফেস্টুন হাতে শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় ঘেরাও করেন।

জেলা এর আরো খবর