রোববার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯
logo
পতাকা তোলায় আপত্তি, মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাই
প্রকাশ : ১৬ আগস্ট, ২০১৬ ০৮:০৮:২৮
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব

মাগুরা: শোক দিবস উপলক্ষে মাদ্রাসায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিত রাখতে রাজী না হওয়ায় মাগুরা সদর উপজেলার বেরইল পলিতা ইউনিয়নের এক মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে গণধোলাই দিয়েছে এলাকাবাসী। আজ সোমবার (১৫ আগস্ট) সকাল ১০টায় বেরইল দারুল হুদা সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ আব্দুল আজিজ নামে ওই মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে।
বেরইল পলিতা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মহব্বত আলী জানান, আজ ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক সকল প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার কথা। কিন্তু সকাল ১০টা পর্যন্ত ওই মাদ্রাসায় পতাকা উত্তোলন করা হয়নি। এটি জানতে পেরে স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মোল্যা, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান, মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার জবেদ আলীসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ওই মাদ্রাসায় যান। তারা অধ্যক্ষকে পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিত করার কথা জানান। এ সময় অধ্যক্ষ মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারি আসেনি বলে জানিয়ে পতাকা উত্তোলনে অস্বীকৃতি জানান। এলাকাবাসীর বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও তিনি পতাকা উত্তোলন করতে রাজী হননি।
উপরন্তু তিনি বলেন, আমি প্রয়োজনে আত্মহত্যা করবো। তবু পতাকা ছোঁব না।
এ অবস্থায় উত্তেজিত জনতা ওই অধ্যক্ষকে গণধোলাই দেন। তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পরে এলাকাবাসী নিজ উদ্যোগে মাদ্রাসায় পতাকা উত্তোলন করেন।
এ ব্যাপারে জানার জন্য ওই অধ্যক্ষের মোবাইলে কল করলে (০১৭২৪০২৮১৩২) সেটি বন্ধ পাওয়া গেছে।
 
এলাকাবাসী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আব্দুল আজিজের বিরুদ্ধে ধর্মীয় উস্কানিমূলক কথা প্রচার ও উগ্রবাদ প্রসারে কাজ করাসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন। পরবর্তীতে স্থানীয় শত্রুজিৎপুর ফাড়ি পুলিশ তাকে আটক করে।  
 

জেলা এর আরো খবর