মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০
logo
পিকআপভ্যান খাদে, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯
প্রকাশ : ০৫ জুলাই, ২০১৬ ১৭:২৭:১৩
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব

ময়মনসিংহ: সদর উপজেলার বেলতলী নামক স্থানে যাত্রীবাহী পিকআপভ্যান (পালকি) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে ঘটনাস্থলে নারীসহ পিকআপভ্যানের পাঁচ যাত্রী নিহত এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরো ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।
মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত আরো ১২ যাত্রী ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
নিহতরা হলেন- ফুলপুর উপজেলার মোকামিয়া গ্রামের হারেজ আলীর ছেলে মোবারক হোসেন (৩২) ও তার স্ত্রী মিরানা (২৫), একই গ্রামের মিরাজ আলীর ছেলে খোকন (৩২) ও তার স্ত্রী শামসুন্নাহার (৩০), সুরুজ আলীর ছেলে আজিজুল ইসলাম (১৫) ও তার বোন আফরোজা (১৯) এবং তার স্বামী জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলার আব্দুল লতিফের ছেলে সাগর (২৫), হালুয়াঘাট উপজেলার বাউশি গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে শাহাদত (১৯)। অপর একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, সকালে গাজীপুরের চৌরাস্তা থেকে ছেড়ে আসা একটি অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই পিকআপভ্যানকে ঢাকা থেকে একটি যাত্রীবাহী রিজার্ভ বাস সদর উপজেলার বেলতলি নামকস্থানে পিছন দিক থেকে ধাক্কা দেয়। এসময় পিকআপভ্যানটি মহাসড়কের পাশে খাদে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই নারীসহ ৫ জন নিহত হন। গুরুতর আহত ১৬ জনকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই নারীসহ আরো ৪ জন মারা যায়।
 
হাসপাতালে ভর্তিকৃত মো. সাঈম ও রিয়াজসহ কয়েকজন যাত্রী জানায়, পিকআপভ্যানের চালক ঘুমিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিল। এসময় পিছন থেকে একটি বাস ধাক্কা দিলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে উল্টে যায়। তারা আরো জানায়, পিকআপভ্যানটি বেপরোয়া গতিতে চলছিল।
ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আব্দুর রহমান বলেন, ‘অন্য একটি দুর্ঘটনার কাজ শেষে ফেরার পথে এই দুর্ঘটনাটি দেখতে পাই। পরে ঘটনাস্থল থেকে ৫ জনকে মৃত ও ১৬ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করি।’

জেলা এর আরো খবর