মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০
logo
গার্মেন্টে ১০ দিন ছুটির দাবিতে বিক্ষোভ-ভাঙচুর
প্রকাশ : ২৭ জুন, ২০১৬ ০৯:২২:১৫
প্রিন্টঅ-অ+
জেলা ওয়েব

গাজীপুর: গাজীপুরে সহকর্মীদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং ঈদের ছুটি বাড়িয়ে ১০ দিন করার দাবিতে গার্মেন্ট শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। এসময় তারা হামলা চালিয়ে গার্মেন্টের দরজা-জানালার কাঁচসহ বিভিন্ন মালামাল ভাঙচুর করে।
রোববার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের তিন সড়ক এলাকার স্প্যারো অ্যাপারেলস লিমিটেডে এ ঘটনা ঘটে। কর্তৃপক্ষ ঈদ উপলক্ষে আট দিনের ছুটি ঘোষণা করলে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে শ্রমিকদের মধ্যে। এরপরেই তারা কাজ ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসে।
শ্রমিক, পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, আসন্ন ঈদ উপলক্ষ্যে তিনদিন ধরে কারখানার শ্রমিকরা ১০ দিনের ছুটি দাবি করে আসছিল। তাদের দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিয়ে কর্তৃপক্ষ বেশ কিছুদিন ধরে প্রতিদিনের কর্মঘণ্টার সঙ্গে অতিরিক্ত এক ঘণ্টা করে কাজ করিয়ে রাখে। এ ছাড়া ঈদে বাড়তি ছুটি দেয়ার কথা বলে কয়েকটি সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবারও শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করান। সে হিসেবে এবারের ঈদ উপলক্ষ্যে সরকার ঘোষিত ৯দিনের সঙ্গে শুক্রবার যোগ হলে ১০ দিনের বেশি ছুটি পাবার কথা।
কিন্তু রোববার কারখানা কর্তৃপক্ষ ঈদ উপলক্ষে ৮ দিনের ছুটির কথা জানালে শ্রমিকদের মাঝে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে। শ্রমিকরা কর্তৃপক্ষের ওই ঘোষণা মেনে না নিয়ে কারখানার অভ্যন্তরে কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ শুরু করে।
এসময় মহিম নামে এক শ্রমিককে ডেকে নিয়ে কারখানার কর্মকর্তা ভারতীয় নাগরিক মি. বেলু শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন। নির্যাতনকালে ওই শ্রমিকের হাতের রগ কেটে দেয়ার গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এতে শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে শ্রমিক নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং ঈদের ছুটি ১০ দিনের দাবিতে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানা থেকে বেরিয়ে আসে। তারা কারখানার সামনে গাজীপুর-ঢাকা সড়কের ওপর অবস্থান নিয়ে অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে।
খবর পেয়ে জয়দেবপুর থানা পুলিশ ও শিল্প পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে প্রায় পৌনে এক  ঘণ্টা পর ওই সড়কে যান চলাচল শুরু হয়।
জয়দেবপুর থানার এসআই আল আমিন জানান, মহিম নামে এক শ্রমিককে বেলু নামের কর্মকর্তা নির্যাতন করার ঘটনায় শ্রমিকরা বিক্ষোভ ও ঢাকা-জয়দেবপুর সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের সরিয়ে দিলে ওই সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

জেলা এর আরো খবর