সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯
logo
বঙ্গবন্ধুর নামে দোকান খোলা যাবে না: ওবায়দুল
প্রকাশ : ২২ মার্চ, ২০১৭ ১৮:৩৫:০৫
প্রিন্টঅ-অ+
দেশ ওয়েব
সিলেট: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর নামে আওয়ামী লীগের ছত্রছায়ায় দোকান খোলা যাবে না। এসব দোকান বন্ধ করে দিতে হবে।

বুধবার দুপুরে সিলেটে সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

প্রতিনিধি সম্মেলনে সিলেট মহানগরসহ বিভাগের চার জেলার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‍“আজকে ব্যাঙের ছাতার মতো, কী বলে, আজকে দেখলাম আওয়ামী প্রচার লীগ। আরে আমার প্রচার বিভাগ আছে স্ট্রং, প্রচার লীগ এলো কোত্থেকে? এসব দেখলেই এদেরকে ধরবেন, পুলিশের হাতে তুলে দেবেন। আওয়ামী কী? প্রচার লীগ। আওয়ামী কী? তরুণ লীগ। আওয়ামী প্রজন্ম লীগ। আর কী কী আছে? ও, আওয়ামী প্রবীণ লীগও একটা আছে। আওয়ামী কর্মজীবী লীগ। আওয়ামী ডিজিটাল লীগও একটা দেখলাম কাল হবিগঞ্জের রাস্তায় আসতে আসতে। এসব চলবে না। ও, হাইব্রিড লীগও আছে। আরে আল্লাহরে কী যে অবস্থা। তাহলে কথা তো হাছা। যে কাউয়া ঢুকছে। এই কাউয়া বের করতে হবে। সবাই একমত? (তখন পাশ থেকে জ্বি শব্দ শোনা যায়)। এই সব দোকান বন্ধ করে দিতে হবে।”

ওলামা লীগের ব্যাপারে ওবায়দুল কাদের বলেন, “ওলামা লীগ আবার কয়টা আল্লাহই জানে। আর একেক সময় একেক ফতোয়া জারি করে। কোনটা আসল কোনটা নকল? চেনা বড় কঠিন।”

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, “সিলেটসহ সারা দেশে আওয়ামী লীগের কোনো পকেট কমিটি চলবে না। প্রতিটি স্থানেই প্রকাশ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় কমিটি দেয়া হবে। সব ভেদাভেদ আর মতপার্থক্য ভুলে দলের স্বার্থে সর্বস্তরের নেতাকর্মীকে একযোগে কাজ করতে হবে।”

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আপনার প্রবীণ-অসুস্থ নেতার খবর যদি না নেন, আপনি যখন অসুস্থ হবেন আপনার খবরও কেউ নেবে না। এগুলো আওয়ামী লীগের চিরবিজয়ী মূল্যবোধ, সৌজন্যবোধ। আজকে রাস্তায় সৌজন্য পোস্টার দেখি, সৌজন্য ব্যানার দেখি, সৌজন্য তোরণ দেখি, কিন্তু হারিয়ে গেছে রাজনীতি থেকে সৌজন্যবোধ।”

বিএনপি প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, বিএনপি হচ্ছে নালিশ পার্টি। তাদের নিয়ে বিচলিত হওয়ার কিছু নেই।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য মাহবুব-উল-আলম হানিফ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন। পরিচালনা করেন সিলেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন।

সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- অর্থমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল মাল আবদুল মুহিত, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথ এমপি, কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন প্রমুখ

দেশ এর আরো খবর