মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
logo
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে মুক্তিযুদ্ধ
ইতিহাস কতটা উঠে আসছে
প্রকাশ : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১০:১২:৪৬
প্রিন্টঅ-অ+
দেশ ওয়েব
ঢাকা: কম্পিউটার গেমসে একের পর এক পাকিস্তানি সৈন্যকে গুলি করে হত্যা। মুক্তিযুদ্ধ-ভিত্তিক অনেক ভিডিও গেমসের এটাই মূল কথা।

মুক্তিযুদ্ধকে শিশু-কিশোরদের কাছে তুলে ধরার জন্য এ ধরনের উদ্যোগের অংশ হিসাবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এ ধরনের বেশ কিছু গেমস এসেছে।

ঢাকার একটি প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ডিজিটালবি লিমিটেডের পরিচালক হাফিজুর রহমান বলছেন, সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে ইতিহাসকে ধরে রাখার জন্যই এ আয়োজন।

তিনি বলেন, “আমরা স্বভাবতই ফেসবুক এবং ইন্টারনেটের সাথে সম্পৃক্ত। সবাই অবসর সময়ে কম্পিউটারে কিংবা মোবাইলে গেম খেলে। এজন্য ভিডিও গেমসের মাধ্যমে আমরা মুক্তিযুদ্ধকে তুলে ধরছি।”

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক এসব ভিডিও গেমস অনেক শিশু-কিশোরের কাছে ধীরে-ধীরে জনপ্রিয় হচ্ছে। ঢাকার একটি স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র আতিকুর রহমান জানালেন স্কুলের পাঠ্য বইতে তিনি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস যতটুকু পড়েছেন তার বাইরে অন্য কোনো মুক্তিযুদ্ধ-ভিত্তিক বই তার এখনো পড়ার সুযোগ হয়নি। কিন্তু তিনি নিয়মিত ভিডিও গেমস খেলেন।

শিক্ষার্থী আতিকুর রহমান বলেন, “এ খেলার মাধ্যমে আমরা শুধু শত্রুদের মোকাবেলা করাটা জানতে পারি। যত বেশি আমি শত্রুদের মোকাবেলা করতে পারবো তত বেশি পয়েন্ট পাব।”

মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে যাদের কোন ধারণা নেই তারা এসব ভিডিও গেমস থেকে কিছু ধারণা পাবে বলে শিক্ষার্থী আতিকুর মনে করেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন সময়ের পরিবর্তনের সাথে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে ডিজিটাল প্লাটফর্মে তুলে ধরতে হবে। এর কোন বিকল্প নেই। কিন্তু সেটি কীভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে তা একটি বড় প্রশ্ন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাহবুবা নাসরিন বলেন, “আমি এ ধরনের উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে দেখি। তবে শুধু গোলাগুলি এবং যুদ্ধ - এসবের মাধ্যমে শিশুরা যখন মুক্তিযুদ্ধকে দেখে তখন কিন্তু তারা প্রকৃত মুক্তিযুদ্ধকে দেখছে না। গেমস যদিও হয়, তাহলে সেটাকে এমনভাবে তৈরি করতে হবে যাতে তারা মুক্তিযুদ্ধের ব্যাপকতা বুঝতে পারে।”

কোন কোন গেম ডেভেলপার বলেন এসব গেমস যখন প্রথমে বাজারে আসে তখন বিষয়টি শুধু বন্দুক ও কামানের খেলা ছিল, কিন্তু সম্প্রতি অনেকে সে খেলার মধ্যে যুদ্ধের রাজনৈতিক এবং সামাজিক দিকগুলো তুলে ধরছে।

ঢাকার একটি গেম ডেভেলপার কোম্পানি ম্যাসিভ স্টার স্টুডিও লিমিটেড-এর কর্ণধার মাহবুব আলম বলেছেন ইন্টারনেটে তারা যে ভিডিও গেমসটি তৈরি করেছেন সেটাকে শুধুই একটি ভিডিও গেমস হিসেবে দেখা ঠিক হবে না। গেমসের সাথে ডিজিটাল পদ্ধতিতে ইতিহাসকে তুলে ধরার চেষ্টা হচ্ছে।

আলম জানান তাদের তৈরি ভিডিও গেমটির মাধ্যমে 'সম্পূর্ণ মুক্তিযুদ্ধকে' তারা অনুভবে আনার চেষ্টা করছেন।

“মুক্তিযুদ্ধের অনেকগুলো দিক আছে। দেশের ভেতরে প্রচণ্ড রকম যুদ্ধ হয়েছে এবং আন্তর্জাতিকভাবেও অনেক দেশ আমাদের যুদ্ধের মধ্যে জড়িয়েছিল। তাছাড়া একজন মা যখন সন্তান হারালেন তখন তাকেও একটা যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অতিক্রম করতে হয়েছে। যুদ্ধের যত দিক আছে তার সবগুলোই আমরা এখানে আনবো,” বলছিলেন আলম।

ভিডিও গেমস ডেভেলপাররা বলছেন তারা মুক্তিযুদ্ধ-ভিত্তিক গেমস তৈরির আগে ব্যাপক গবেষণা করেছেন। ইতিহাসের কোন তথ্যের যাতে কোন বিচ্যুতি না হয় সেটিতে তারা যথেষ্ট নজর রাখেন।

ডিজিটাল মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধকে তুলে ধরতে না পারলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশের অনেকের কাছে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে যথেষ্ট ধারণা থাকবে না। -বিবিসি

দেশ এর আরো খবর