সোমবার, ০১ জুন ২০২০
logo
অবৈধ ভিওআইপির রাঘববোয়ালকে বাদ দিয়েই ডিবির চার্জশিট!
প্রকাশ : ২৭ জুন, ২০১৬ ১৬:২৩:১৭
প্রিন্টঅ-অ+
দেশ ওয়েব

ঢাকা: অবৈধ ভিওআইপি মামলার প্রধান আসামির নাম বাদ দিয়ে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে মগানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) দক্ষিণ। পরে আদালতের নির্দেশে ওই মামলা পুনঃতদন্ত ভার পেয়ে সেই আসামি এসএম নাজমুল হাসান ওরফে নবীনকে (৩৯) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।
সোমবার দুপুরে গ্রেপ্তারের তথ্যটি বাংলামেইলকে জানান পিবিআই ঢাকা মেট্রোর বিশেষ পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ।
তিনি জানান, গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) বাদী হয়ে মামলাটি করলেও তাকে বাদ দিয়েই চার্জশিট দিয়েছিল। পরে আদালতের নির্দেশক্রমে পিবিআই তদন্ত শুরু করে। এখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর চার্জশিট আদালতে দাখিল করা হবে।
পিবিআই এসএসপি জানান, রোববার রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে ভিওআইপি ব্যবসার রাঘোববোয়াল এসএম নাজমুল হাসান ওরফে নবীনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার হেফাজত থেকে দু’টি অবৈধ ভিওআইপি মেশিনসহ সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।
তদন্ত সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নবীন দীর্ঘ চার বছর পলাতক ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ আইন ২০০১ এর ৩৫(২)/৫৫(৭) এর এজাহারনামীয় আসামি। পল্লবী থানায় ডিবি বাদী মামলাটি করেছিল।
২০১২ সালের ১৬ জুন রাতে পল্লবী থানা এলাকার ১১ নম্বর সেকশনের, এ-ব্লকের ৩ নম্বর রোডের ১২ নম্বর বাড়ি থেকে ডিবি দক্ষিণের চোরাচালান টিমের এসআই আমিনুজ্জামান নবীনের সহযোগী জাকির হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নবীন আগেই সটকে পড়ে।
ডিবি দক্ষিণের চোরাচালান টিমের পুলিশ পরিদর্শক আজিজুর রহমান মামলাটির তদন্ত করেন। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে তিনি নবীনের নাম বাদ দিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।
কিন্তু আদালত অসন্তুষ্ট হয়ে মামলাটি পুনঃতদন্তের জন্য ডিআইজি পিবিআই ঢাকাকে নির্দেশ দেন। পিবিআই ঢাকা মেট্রোর পুলিশ পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম উত্তরায় অভিযান চালিয়ে আসামি নবীনকে গ্রেপ্তার করেন। তার স্থায়ী ঠিকানা মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানা।

দেশ এর আরো খবর