বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০
logo
ক্লিক করলেই টাকা, ওয়েবসাইটে ধোঁকা
প্রকাশ : ১৬ জুন, ২০১৬ ১৫:৪১:৪৭
প্রিন্টঅ-অ+
দেশ ওয়েব

ঢাকা: আউটসোর্সিং ও বিটকয়েনের নামে ধোঁকা দিচ্ছে এমন কয়েকটি ওয়েবসাইটের খোঁজ পেয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজমন (সিটি) ইউনিট। নজরুল ইসলাম মামুন ও জহিরুল ইসলাম জহির নামে এই প্রতারক চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গণমাধ্যম শাখায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান কাউন্টার টোরোরিজমন ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ‘অনলাইনে নির্ধারিত অর্থের বিনিময়ে রেজিস্ট্রেশন করে ক্লিকের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করুন’ এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিলো এই প্রতারক চক্রটি।
মনিরুল ইসলাম জানান, বুধবার রাত ১০টার দিকে রাজধানীর রমনা থানার মৌচাক এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরা মূলত দেশের বেকার যুবকদের ক্লিকের মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের প্রস্তাব দিয়ে থাকে। তবে এই উপার্জনের আগে তাদের কাছ থেকে ৩ থেকে ৫ হাজার টাকা নেয়া হয় রেজিস্ট্রেশন ফি।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা জানান, তাদের আরো সহযোগী আমিন, মহসিন ও সালামসহ কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে বিদেশি ওয়েবসাইট http://impaxgold.com, https://www.facebook.com/ilgamosbd, http://ilgamos.com এবং https://www.onecoin.com  এর মাধ্যমে সাধারণ মানুষ দের ধোঁকা দিয়ে বিপুল অর্থ পাইয়ে দেয়ার কথা বলে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে, এই চক্রের অনেকেই ‘অবৈধ’ এমএলএম কোম্পানি ডেসটিনি’র প্রাক্তন সদস্য এবং তাদের কুমন্ত্রণায় এই ডিজিটাল এমএলএম এবং বিটকয়েন এর যাত্রা শুরু। উল্লেখ্য যে, এই চক্র সাধারণ সদস্যদের উক্ত ওয়েবসাইটগুলোতে সদস্য বানিয়ে নির্দিষ্ট ডলারের বিনিময়ে ID বানিয়ে দেয় এবং তাদেরকে সদস্য সংগ্রহ করতে বলা হয় এবং তাদের অধিনস্থ ডান এবং বামের সদস্য বানিয়ে তাদের কাছ থেকে নির্দিষ্ট হারে অর্থ নেয়। এভাবে ‘টপ ডাউন চেইন’ আকারে ডিজিটাল এমএলএম সিস্টেম পক্ষান্তরে ক্রিপ্টো কারেন্সি’র (বিটকয়েন) মাধ্যমে এটা ছড়িয়ে পরে।
প্রাথমিকভাবে কিছু সদস্য লাভবান হলেও বিপুল পরিমাণ নীচের দিকের সদস্য আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এরা সাধারণ মানুষকে আকর্ষিত করার জন্য বিভিন্ন হোটেল এ জাঁকজমক পূর্ণ অনুষ্ঠান করে তাদের ব্যবসা সম্বন্ধে সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন মিথ্যা তথ্য প্রদান করে।
ক্রিপ্টো কারেন্সি (বিটকয়েন) নিয়ে কাজ করে এমন তিনটি ইন্টারনেট সাইট হলো, http://impaxgold.com, https://www.onecoin.com এবং http://ilgamos.com।
এই সাইটগুলো বন্ধ করার জন্য যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডিবির সাইবার ক্রাইম টিমের সিনিয়র এসি নাজমুল ইসলাম।
আসামিদের বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে রমনা থানায় নিয়মিত মামলা করা হয়েছে বলেও জানান কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট এর অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম।

দেশ এর আরো খবর