বুধবার, ২৭ মে ২০২০
logo
দেশজুড়ে বায়োমেট্রিক ভোগান্তি
প্রকাশ : ০১ জুন, ২০১৬ ১৬:২৮:৫৬
প্রিন্টঅ-অ+
দেশ ওয়েব

ঢাকা: দেশে বর্তমানে মোট মোবাইলফোন গ্রাহক ১৩ কোটি ১৯ লাখ ৪৯ হাজার। এরমধ্যে মঙ্গলবার মধ্যরাত পর্যন্ত বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হয়েছে ১০ কোটি ৯০ লাখ ৭৩ হাজার ২৭২টি সিমকার্ড।  হিসাব অনুযায়ী মোট সিমের ৮৩ শতাংশই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে।
তবে নিবন্ধন করেও অফ নেটওয়ার্ক এবং নিবন্ধন না করেও কল আসার পাশাপাশি সিম বেহাত হওয়ার ঘটনাও ঘটেছে বায়োমেট্রিক সিম পুন:র্নিবন্ধনে। বুধবার নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন ও কলড্রপের হারও বেড়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ভূক্তোভোগীরা।
অভিযোগ রয়েছে, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করতে গিয়ে অনেকেই বিড়ম্বনায় পড়েছেন। নিবন্ধনের শেষ দিন মঙ্গলবার আঙুলের ছাপ নিয়ে বিড়ম্বনার শিকার হয়েছে গ্রাহকরা। জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের হেল্প লাইন ১৬১০৩ নম্বরে ফোন করে সংযোগ পেতে সমস্যার পাশাপাশি সংযোগ পেয়ে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করেও সমাধান না পেয়ে হাল ছেড়ে দেয়ার ঘটনাও ঘটেছে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস লিখে এমনই বিড়ম্বনা আর ভোগান্তির কথা জানাচ্ছেন ভূক্তোভোগী গ্রাহকরা।
এরমধ্যে গুণী গীতিকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল ফেসবুকে লিখেছেন, “আমার দুটি গুরুত্বপূর্ণ সিম রেজিস্ট্রেশন করতে গিয়ে দেখলাম সিম দুটি অন্য দুজন মানুষের নামে এরই মধ্যে রেজিস্ট্রেশন হয়ে গিয়েছে। বাহ!”
তিনি লিখেন, “এখন থেকে ঐ দুটি ভাগ্যবান মানুষ ইচ্ছে করলেই আমার সকল গোপন তথ্য সহজেই সংগ্রহ করতে সক্ষম, বাহ! ফোন দুটিতে আমার কাছের মানুষরা কল দিতেই কল ধরবে ওই ভাগ্যবান দুজন। বাহ! বাহ! বিশেষ ধন্যবাদ মোবাইল কোম্পানিকে।”
একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের নারী কর্মকর্তা লিখেছেন, “আমি তো বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশন করেছি। কিন্তু আমার নাম্বারে কল আসা-যাওয়া বন্ধ হয়ে গেলো। কী করব এখন?”

দেশ এর আরো খবর