রোববার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯
logo
সপ্তরূপা নৃত্যশিক্ষালয়ের ৩০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভা, সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
বাঙালি জাতির রয়েছে সাহিত্য সাংস্কৃতির বিরাট ঐতিহ্য, সমৃদ্ধির ভান্ডার : ডাঃ দীপু মনি এমপি
প্রকাশ : ১২ মার্চ, ২০১৭ ১০:২৭:১৪
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব
চাঁদপুর: সপ্তরূপা নৃত্যশিক্ষালয় চাঁদপুরের ৩০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা, সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ১১ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডাঃ দীপু মনি এমপি। তিনি বক্তব্যে বলেন, বাঙ্গালি জাতির যেমন হাজার বছরের ইতিহাস রয়েছে। তেমনি আছে তার সাহিত্য সাংস্কৃতির বিরাট ঐতিহ্য এবং সমৃদ্ধির ভান্ডার। আমাদের দেশ যখন অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি সাহিত্য ও সাংস্কৃতিকেও বিশ্বের কাছে তুলে ধরার প্রয়োজন রয়েছে। তিনি বলেন, গুণের কদর না করলে গুণী সংবর্ধনা পায়না। কোন প্রতিষ্ঠান পেছন থেকে যদি সহযোগিতা না পায় সেই প্রতিষ্ঠান চালানো কষ্টকর। চাঁদপুরে ৩০ বছর ধরে সপ্তরূপা নৃত্য শিক্ষালয় তাদের কর্মকা- সকলের সহযোগিতা নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন।  পেছনের শক্তি যদি না থাকে তাহলে কোন সংগঠনই চলতে পারে না। অনেকেই অনেকভাবে সপ্তরূপাকে সহায়তা করছে। অনিমা দিদিকে যারা সহযোগিতা করছে তাদেরকে ধন্যবাদ  জানাই। আজকে যারা নৃত্য করেছে সত্যিই তারা প্রশংসনীয় নৃত্যশিল্পী। জাতি চলতে হলে শিল্প ও সংস্কৃতির বিকাশ ঘটাতে হবে। আমরা যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছি তাতে শিল্প সংস্কৃতি ও আরো এগিয়ে  নিতে  হবে। সপ্তরূপা নৃত্য শিক্ষালয়কে আমরা আরো সহযোগিতা করে এগিয়ে নেবো। চাঁদপুরে অনেক সংবাদপত্র রয়েছে। একজন  সম্পাদক আরেকজন  সম্পাদককে গুরু হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে এটা সত্যি প্রশংসনীয়। একজন  মানুষ আরেকজন মানুষকে স্মরণ করে,  সেইতো মানুষ। যারা আমাকে নির্বাচনে বাঁধা দিয়েছে আমি  তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানাই। যদি তাদের বাঁধা না পেতাম  তা নাহলে বাঁধা অতিক্রম  করা আমি শিখতাম না। চাঁদপুরকে নিয়ে যে স্বপ্ন আমি দেখেছি যেন আপনাদের পাশে থেকে সেই স্বপ্ন পূরণ করতে পারি। তিনি শিশু শিল্পীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সমাজে যা কিছু মন্দ তা দূরে রাখবে। আর যা কিছু ভালো তা কাছে টেনে নিবে। জাতির পিতা স্বাধীনতার পর যে মুক্তি চেয়েছিলেন বর্তমান সরকার শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই মুক্তির পথে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।
            তিনি আরো বলেন, সারাদেশের মধ্যে চাঁদপুরের অনিমা সেন নিজের দক্ষ ও মেধার মাধ্যমে নতুন নতুন শিল্পী তৈরি করছেন। সবার সহযোগিতা ছাড়া একটি প্রতিষ্ঠান ৩০বছর অতিক্রম করা সহজ নয়। অনিমা সেন সংগঠনটিকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। তাতে অনেক বহুগুণী শিল্পী সৃষ্টি হবে। এ শিল্পীরাই আগামী দিনে দেশ বিদেশে চাঁদপুরের সুনাম বয়ে আনবে বলে আমি মনে করি।
সংগঠনের সভাপতি জাফর ইকবাল মুন্নার সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক কে এম মাসুদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, পাবনা সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বিলকিস আজিজ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাহিত্য একাডেমীর মহা পরিচালক কাজী শাহাদাত, জেলা স্কাউটের কমিশনার অজয় ভৌমিক, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কালচারাল অফিসার আবু সালেহ মো. আব্দুল্লাহ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শরীফ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জিএম শাহীন, বিষ্ণপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শামীম খান।
সংগঠনের পক্ষ থেকে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শরীফ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জিএম শাহীন, জেলা স্কাউটের কমিশনার অজয় ভৌমিক, বিটিভির জেলা প্রতিনিধি ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জীবন, চাঁদপুর সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যাপিকা আজমলা বেগম, লেডী প্রতিমা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা পরী মজুমদার, গুয়াখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক জাহানারা বেগমের হাতে প্রধাণ অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ সংবর্ধনার ক্রেস্ট তুলে দেন। অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশ করে কুমু, পাহাড়ী, অন্তু, অনুশ্রী, কথা, দেবশ্রী, মিলি, কান্তিকা, ইফতিদা, রাইসা, সাবা, সম্পূনা, পারভেল।
এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. জহিরুল ইসলাম, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বি এম হান্নান, চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওয়ালি উল্লাহ ওলি, চাঁদপুর ইনার হুইল ক্লাবের সভানেত্রী মাহমুদা খানম সহ অন্যান্যরা। অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন অধ্যক্ষ অনিমা সেন চৌধুরী ও সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন সংগঠনের হিমাংশু সেন চৌধুরী, বিরেন সাহা, নিলুফা আক্তার, নাসিমা বেগম, শাহনাজ পারভিন, ফাতেমা আক্তার মনি, সম্পা সাহাসহ অন্যান্যরা। আলোচনা সভা শেষে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে চিত্রাংঙ্কন, সাধারণ নৃত্য ও লোক নৃত্যের ৩টি গ্রুপে মোট ৩৩জন প্রতিযোগীর মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর