মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯
logo
চাঁদপুরেও পরিবহন ধর্মঘট ॥ ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ ও শিক্ষার্থীরা
প্রকাশ : ০২ মার্চ, ২০১৭ ১২:৫৫:০১
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব
চাঁদপুর; বাস চালক জমির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ট্রাক চালককে মৃত্যুদন্ড দেয়ার প্রতিবাদে সারাদেশের ন্যায় চাঁদপুরেও চলছে পরিবহন ধর্মঘট। গতকাল বুধবার ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন  চাঁদপুর থেকে সকল রুটে কোন যানবাহন ছেড়ে যায়নি। এ কারণে দূর-দুরান্তে আসা-যাওয়ার যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পরে। এস.এস.সি পরীক্ষা চলমান থাকায় পরীক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ চরম বিপাকে পরতে হয়েছে।
            শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সকাল থেকে পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ ও শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে যাবজ্জীবন কারাদ-প্রাপ্ত চালকের মুক্তির দাবি জানিয়ে সরকারের বিপক্ষে শ্লোগান দিয়ে যানবাহন চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে। সাংবাদিক তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীর ৬বছর পূর্বে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায়। এ মৃত্যুর ঘটনার পর দায়ী বাসচালককে আটক করে ৫ বছর ধরে মামলা চলামান থাকায় জেল হাজতে রয়েছে। গত সপ্তাহে যাবজ্জীবন কারাদ-ের আদেশ দিয়েছেন মানিকগঞ্জের আদালত। এ আদেশের প্রতিবাদে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের আহ্বানে সারা দেশের ন্যায় চাঁদপুরেও পরিবহন ধর্মঘট চলে।
            ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন গতকাল বুধবার সকাল থেকেই চাঁদপুর জেলা পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়ন, জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন ও সিএনজি স্কুটার শ্রমিক ইউনিয়ন ঐক্যবদ্ধভাবে শহরের বাসস্টেশন এলাকার চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে অবস্থান নেয়। চাঁদপুর জেলা পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের  সভাপতি বাবুল মিজি ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন মুন্সী জানান, বাসচালক জমিরকে যাবজ্জীবন কারাদ- দেয়ার পর চুয়াডাঙ্গার পরিবহন শ্রমিকরা প্রথম ধর্মঘট শুরু করে। গত রোববার খুলনা অঞ্চলের ১০ জেলায় ধর্মঘট শুরু করেন পরিবহন শ্রমিকরা। এরই মধ্যে সাভারে এক সড়ক দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যুর ঘটনায় সোমবার ঢাকার আদালত ওই ট্রাকচালককে মৃত্যুদ- দেয়। এর প্রতিবাদে বাস প্রমিকরা গত ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে একযোগে সারাদেশে বাসসহ দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়।
            গতকাল সাকাল থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত চাঁদপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় শ্রমিকরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। সদর থানা যুবলীগ সভাপতি নাজমুল পাটওয়ারীর নেতৃত্বে ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন, সিএনজি স্কুটার শ্রমিক ইউনয়নের সভাপতি দাবিদার কাজী ওমর ফারুক ও সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক রিপন হোসেনের নেতৃত্বে মিছিল নিয়ে বাসস্টেশন এলাকলায় সমবেত হয়। শ্রমিকরা সাধারণ মানুষের সাথেও রূড় আচরণ করে। দুপুর ১২টায় পরিবহণ মালিক পক্ষে মোঃ শাহির হোসেন পাটওয়ারী, মফিজুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন মালিক ও চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক মহিউদ্দিন, হারুন অর রশিদ ও পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করে এবং এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে ইজিবাইক ও রিক্সা চলাচলের ব্যবস্থা করেন। সকাল থেকে শ্রমিকরা শহরের চেয়াম্যানঘাটা, ষোলঘর, ওয়্যারলেছ মোড় ও ওয়াপদা গেইট এলকায় বেশ কিছু সিএসজি স্কুটার ভাংচুর করে পরিবহণ ধর্মঘট চলার কারণে চাঁদপুর-কুমিল্লা, চাঁদপুর-চট্টগ্রাম, চাঁদপুর-ঢাকা, চাঁদপুর-দিনাজপুর, চাঁদপুর-সিলেট, চাঁদপুর-খাগড়াছরি সড়কে কোন যাত্রীবাহী বাস চলাচল করেনি। এতে করে এসব সড়কে চলাচলকারী যাত্রীরা চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর