শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯
logo
চাঁদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সংবর্ধনায় যুবলীগের স্মরণকালের বৃহত্তম সমাবেশ
জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নত বিশ্বে পরিণত হবে : ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর
প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:৫৫:৩০
প্রিন্টঅ-অ+
আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বয় : মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া
চাঁদপুর জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী ও সদস্যদের গণসংবর্ধনা দিয়েছে চাঁদপুর জেলা যুবলীগ। শনিবার বিকেলে চাঁদপুর শহরের হাসান আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি চাঁদপুরের স্মরণকালের বৃহত্তম সমাবেশে রূপ নেয়। বিশেষ করে গত এক যুগে চাঁদপুর জেলা যুবলীগের কোনো আয়োজনে এতবড় গণজমায়েত লক্ষ্য করা যায়নি বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা মন্তব্য করেছেন। অনুষ্ঠানের নির্ধারিত প্রধান অতিথি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম এমপি দলের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীরকে সম্মান জানিয়ে নিজের পরিবর্তে তাকে প্রধান অতিথির ঘোষণা দেন। মন্ত্রীর এই ঘোষণা চাঁদপুর তথা দেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে নতুন মাত্রা যুক্ত করেছে। অন্যদিকে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী মায়া চৌধুরী।
            দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম এমপি তার বক্তব্যে বলেন, আগামী ২০১৯ সালের একদিন আগেও আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতা ছাড়বে না। এ নির্বাচন হবে শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে। নির্বাচন নিয়ে বিএনপি যতই চিল্লাচিল্লি করুক, তাতে কোনো কাজ হবে না। গতবার নির্বাচনে না গিয়ে তাদের আম গেছে, আর এবারের নির্বাচনে অংশ না নিলে তাদের আম-ছালা দু’টোই যাবে। তিনি বলেন, চাঁদপুর জেলা পরিষদে চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে যোগ্য নেতারা নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের নেতৃত্বে চাঁদপুরে উন্নয়নের নতুন জোয়ার বইবে।
            তিনি বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, দুষ্টমি বাদ দিয়ে জনগণের কাছে আসুন, জনগণের সাথে মিশুন। জনগণ যদি আপনাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে তবে আমরা সালাম দিয়ে আপনাদের হাতে ক্ষমতা তুলে দিবো। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। তাই আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে দেশের উন্নয়নে জোয়ার বয়। আগামী নির্বাচনে সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরেই জনগণের কাছে আমাদের ভোট চাইতে হবে। ইনশাল্লাহ জনগণ আমাদের পক্ষেই রায় দিবে।
            সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি তার বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী চেয়ারম্যান ও সদস্যদের নেতৃত্বে চাঁদপুরের উন্নয়নে অনেকদূর এগিয়ে যাবে বলে আমার বিশ^াস। চাঁদপুরবাসীর জন্য সুখবর হলো, চাঁদপুরে অর্থনৈতিক অঞ্চল গঠন করার প্রক্রিয়া চলছে। এই অর্থনৈতিক অঞ্চল গঠনের মাধ্যমে চাঁদপুরের চেহারা পাল্টে দেয়া হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্ধারিত সময়ে বাংলাদেশ উন্নত বিশে^ পরিণত হবে। এ জন্য আমাদের সবাইকে স্ব স্ব অবস্থান থেকে ভূমিকা রাখতে হবে। 
            জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ। সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী।
            জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ঝন্টু দাসের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দীপু, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনজুর আহমেদ মঞ্জু,  ছেঙ্গারচর পৌর মেয়র রফিকুল আলম জজ, কচুয়া পৌর মেয়র ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি নাজমুল আলম স্বপন, ইউপি চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম মিয়াজী, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পারভেজ করিম বাবু, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ আলী মাঝি, পৌর যুবলীগ সভাপতি মামুনুর রহমান দোলন, সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান  মোল্লা, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ফরিদা ইলিয়াছ, মতলব দক্ষিণ উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জহির সরকার, মতলব উত্তর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মনিরুজ্জামান, কচুয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল প্রধান, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নাজমুল পাটওয়ারী প্রমুখ।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর