বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯
logo
তথ্য অধিকার আইন ২০০৯-এর কার্যকর বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা
সুশাসন নিশ্চিত করা, দুর্নীতি প্রতিরোধ, স্বচ্ছতা আনয়ন ও সোনার বাংলা গড়ার জন্য তথ্য অধিকার আইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ : জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল
প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২০:৫৪:২৪
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব
‘চাই তথ্য অধিকার আইনের কার্যকর বাস্তবায়ন’ এই শ্লোগান নিয়ে জেলা প্রশাসন, চাঁদপুর ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) চাঁদপুরের আয়োজনে তথ্য অধিকার আইন ২০০৯-এর কার্যকর বাস্তবায়নের লক্ষ্যে চাঁদপুরের বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তাগণের অংশগ্রহণে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। গত ৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা ৪৫ মিনিট থেকে দিনব্যাপী কর্মশালাটি এলিট চাইনিজ রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালার উদ্বোধন করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সনাক সভাপতি কাজী শাহাদাত। কর্মশালায় প্রশিক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন টিআইবির প্রোগ্রাম ম্যানেজার-সিই (কুমিল্লা ক্লাস্টার) করুণা কিশোর চক্রবর্তী ও টিআইবির এরিয়া ম্যানেজার মোঃ মাসুদ রানা।
            উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল বলেন, সুশাসন নিশ্চিত করা, দুর্নীতি প্রতিরোধ, স্বচ্ছতা আনয়ন ও সোনার বাংলা গড়ার জন্য তথ্য অধিকার আইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তথ্য অধিকার আইনের ফলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ব্যাপক পরিবর্তন হচ্ছে। তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে আপনার ধারণা না থাকলে আপনি বিপদে পড়তে পারেন। জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন চলছে। দুদক খুবই দক্ষতার সাথে কাজ করছে। আমাদের বিবেককে আরও সচেতন করতে হবে। তিনি আরও বলেন, আপনারা যদি আজকের কর্মশালা থেকে তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে জানতে পারেন তাহলে আপনার ব্যক্তিগত জীবনে, প্রাতিষ্ঠানিক ক্ষেত্রে ও পারিবারিক জীবনে কাজে লাগাতে পারবেন। ব্র্যান্ডিং চাঁদপুর বাস্তবায়নের জন্যও তথ্য অধিকার আইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সনাক-টিআইবি এ আইনটি বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে। তার অন্যতম উদাহরণ হচ্ছে তথ্যমেলা। তিনি তথ্য মেলায় তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানসমূহকে স্টল দিয়ে অংশগ্রহণ করার অনুরোধ করেন। তিনি সনাক-টিআইবিকে এ রকম একটি ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা আয়োজন করার জন্য ধন্যবাদ জানান।
            সভাপতির বক্তব্যে সনাক সভাপতি কাজী শাহাদাত বলেন, জেলা প্রশাসন ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), চাঁদপুরের আজকের এই কর্মশালার উদ্দেশ্য হচ্ছে সাধারণ জনগণের তথ্য প্রাপ্তির অধিকার নিশ্চিত করা। তথ্য অধিকার আইনের সুফল আজ জনগণ পেতে শুরু করেছে। অনলাইনের মাধ্যমে আমরা অনেক তথ্যসেবা পেয়ে থাকি, যা সম্ভব হয়েছে তথ্য অধিকার আইনের ফলে। তিনি আরো বলেন, আপনারা আজকের এ ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা থেকে তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে যা কিছু জানতে পারবেন তা আপনার ব্যক্তিগত ও কর্মক্ষেত্রে কাজে লাগাতে পারবেন বলে বিশ্বাস করি। তিনি কর্মশালায় অংশগ্রহণ করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান।
            টিআইবির এরিয়া ম্যানেজার মোঃ মাসুদ রানার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শরীফ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জিএম শাহীন ও টিআইবির কুমিল্লা ক্লাস্টারের প্রোগ্রাম ম্যানেজার-সিই করুণা কিশোর চক্রবর্তী। কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী তথ্য কর্মকর্তাবৃন্দ দলীয় কাজের মাধ্যমে বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন। বিভিন্ন বিষয়ে তারা নিজেদের দায়িত্ব পালনে বাধা সমূহ চিহ্নিতকরণের পাশাপাশি সেগুলো থেকে উত্তরণের উপায়সমূহ চিহ্নিত করেন। তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নের জন্য এবং জনসাধারণের তথ্যসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে তারা তাদের স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে কাজ করবেন বলে জানান। তথ্য কর্মকর্তাগণ তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে তথ্য কর্মকর্তার বোর্ড টানানোর জন্য অঙ্গীকার করেন। কর্মশালা শেষে অংশগ্রহণকারীগণ অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তাগণের পক্ষে তথ্য প্রদান করা সম্ভব নয়। প্রয়োজন সকলের সহযোগিতা। বক্তারা এই আইনটি সম্পর্কে ব্যাপক জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য বিভিন্ন উপকরণ তৈরি, তথ্য ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজ্ড করার মাধ্যমে মানুষকে অবহিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। অংশগ্রহণকারীগণ তথ্য মেলায় কিশোর-কিশোরীদেরকে পরিদর্শনের সুযোগ করে দেয়ার আহ্বান জানান। তারা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নিয়ে এ ধরনের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা আয়োজন করার পরামর্শ প্রদান করেন। চাঁদপুরের সরকারি বেসরকারি ৪৯টি প্রতিষ্ঠানের তথ্য কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন। অংশগ্রহণকারীগণ অত্যস্ত স্বতঃস্ফূর্তভাবে কর্মশালার আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সনাক সদস্য মোঃ আব্দুল মালেক। এছাড়াও উদ্বোধনী পর্বে উপস্থিত ছিলেন সনাক সদস্য ইসমত আরা সাফি বন্যা, মোঃ আলমগীর পাটওয়ারী, এবিএম নজরুল আমিন সাজু ও ইয়েস গ্রুপের সদস্যবৃন্দ।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর