শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯
logo
গণি মডেল উবি’র শতবর্ষ পূর্তি ও প্রাক্তন ছাত্র পুনর্মিলনী উৎসবের প্রেসব্রিফিংয়ে উৎসব কমিটির আহ্বায়ক নাছির উদ্দিন আহমেদ
পুনর্মিলনীসহ শতবর্ষ উৎসব সুন্দরভাবে শেষ করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি
প্রকাশ : ০৭ জানুয়ারি, ২০১৭ ১২:৩৮:৪৭
প্রিন্টঅ-অ+
আমাদের সকল কাজে সাংবাদিকরা বেশ উৎসাহ জুগিয়েছেন ঃ অ্যাডঃ সেলিম আকবর
চাঁদপুর: চাঁদপুর গণি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি ও প্রাক্তন ছাত্র পুনর্মিলনী উৎসব উপলক্ষে প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে । এ  উপলক্ষে জাতীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে গতকাল ৬ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে স্টেডিয়াম ভিআইপি প্যাভিলিয়নে এ প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উৎসব উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চাঁদপুর পৌরসভার  মেয়র আলহাজ¦ নাছির উদ্দিন আহমেদ । তিনি তার বক্তব্যে বলেন, যে বিদ্যালয়টি শত বছর পালন করতে যাচ্ছে, সেটি জেলার ঐতিহ্যবাহী একটি স্কুল। ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়টিকে নিয়ে আমরা গর্ববোধ করি। স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্যই আমাদের এ আয়োজন। শিক্ষাক্ষেত্রে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিদ্যালয়টির জন্য আমাদের চেষ্টা সবসময় অব্যাহত থাকবে।
তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন, বিদ্যালয়টি লেখাপড়া-খেলাধুলায় সকল ক্ষেত্রেই সাফল্য অর্জন করেছে। যদিও মাঝে কিছু সময় বিদ্যালয়ের রেজাল্টে কিছুটা ছন্দপতন হয়। বর্তমানে গণি স্কুল আবার স্বমহিমায় উদ্ভাসিত হচ্ছে। আজ শনিবার আমাদের বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উৎসব সফলভাবে শেষ করার জন্যে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। আমরা একটি সুন্দর গুছানো অনুষ্ঠান করতে চাই, যেনো আমাদের দেখে অন্যেরাও আগ্রহবোধ করেন। উৎসবকে ঘিরে যে প্রচার-প্রচারণা হয়েছে তাতে বিদ্যালয়ের সুনাম আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। আমি যখন সুযোগ পেয়েছি তখন বিদ্যালয়ের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি এবং আগামীতেও থাকবো। আমাদের এ অনুষ্ঠান কোনো রাজনৈতিক অনুষ্ঠান নয়। আমাদের নির্ধারিত কার্ড ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। তাই শুধু আমন্ত্রিত অতিথিরাই এখানে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। এ অনুষ্ঠানকে সফল করতে আমাদের ২১টি উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টায় এখন আমরা উৎসব উদ্যাপনের দাঁড়প্রান্তে দাঁড়িয়ে রয়েছি। জেলার সাংবাদিকরা আমাদেরকে উৎসবের ব্যাপারে অনেক সহযোগিতা করেছেন। প্রত্যেকটি পত্রিকাসহ সকল সাংবাদিকই এ অনুষ্ঠানকে সুন্দরভাবে শেষ করার জন্য সহযোগিতা করবেন এ প্রত্যাশা করছি।
উৎসব কমিটির সদস্য সচিব ও চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডঃ সেলিম আকবর সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, পুনর্মিলনীর ক্ষেত্রে আমরা সকলেই সুশৃঙ্খলভাবে কাজ করছি। আমাদের সকল কাজে আমাদের আহবায়কসহ জেলার সকল পর্যায়ের সাংবাদিকরা বেশ উৎসাহ জুগিয়েছেন। শতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে আমরা সকলেরই সকল ধরনের সহযোগিতা পেয়েছি বলে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমরা সকলে মিলে যদি একত্রিত কাজ করি তাহলে ঐতিহ্যবাহী স্কুলটি আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবে। পুনর্মিলনীসহ শতবর্ষ উৎসব সুন্দরভাবে যেনো আমরা শেষ করতে পারি এ জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি ।
চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শরীফ চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্বাস উদ্দিন, প্রাক্তন ছাত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা হানিফ পাটোয়ারী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইকরাম চৌধুরী, শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম, শহীদ পাটোয়ারী ও বিএম হান্নান, বর্তমান কমিটির  সাধারণ সম্পাদক জিএম শাহীন, সাবেক সাধারণ সমপাদক ইকবাল পাটোয়ারী, রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী ও প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি আলম পলাশ।
এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ও জেলা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আলহাজ¦ মোস্তাক হায়দার চৌধুরী, উৎসব কমিটির সমন্বয়ক আমিনুর রহমান বাবুল, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক জালাল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাবেক ছাত্র শাজাহান চোকদার, দেওয়ান আরশাদ আলী, কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান দর্জি, নুরুল ইসলাম নান্নুসহ অন্যান্য শিক্ষাথীরা।
    সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম এমপি। উদ্বোধন করবেন বিদ্যালয়ের সবচেয়ে বয়োবৃদ্ধ প্রাক্তন শিক্ষার্থী আলহাজ্ব ডাঃ এম এ গফুর। পুনর্মিলনীতে ইতোমধ্যে সহ¯্রাধিক শিক্ষার্থী রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করেছে। এ অনুষ্ঠানের ব্যয় বাবদ বাজেট ধরা হয়েছে অর্ধকোটি টাকা।
    অনুষ্ঠানের কর্মসূচির মধ্যে থাকবে ঃ সকাল ৮টায় বিদ্যালয়ের অ্যাস্বেলীতে অংশগ্রহণ, সকাল ৯টায় আনন্দ র‌্যালি, সকাল সাড়ে ৯টায় নাস্তা ও ফুল দিয়ে বরন, সকাল ১০টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সোয়া ১০টায় দলীয় নৃত্য, সাড়ে ১০টায় কুরআন তেলোওয়াত, গীতা পাঠ, শোক প্রস্তাব, ও দোয়া। অতিথিদের শুভেচ্ছা বক্তব্য, স্মরনিকা উন্মোচন, কৃতি শিক্ষাথীদের বৃত্তি প্রদান, ক্রীড়াবিদের সংবর্ধনা, প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষকদের সংবর্ধনা ও সম্মাননা, অতিথিদের সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান, দুপুর দেড়টায় নামাজের বিরতি ও মধ্যাহ্ন ভোজ, দুপুর আড়াইটায় প্রাক্তন ছাত্রদের বিনোদন আড্ডা ও ফটোসেশন, বিকেল ৩টায় প্রাক্তন ছাত্রদের স্মৃতিচারণ, বিকেল ৪টায় প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, মহিলাদের চেয়ার প্রতিযোগিতা, শিশুদের চকলেট দৌড়, সন্ধ্যায় র‌্যাফেল ড্র, আতশবাজি ও রাতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর