মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯
logo
কুমিল্লা সশস্ত্র বাহিনী দিবসে চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন ব্যক্তির অংশগ্রহণ
প্রকাশ : ২২ নভেম্বর, ২০১৬ ০৮:২১:১৪
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব
চাঁদপুর: গতকাল ২১ নভেম্বর সশস্ত্র বাহিনী দিবসে কুমিল্লা সেনানিবাস ‘এম আর চৌধুরী’ প্রাঙ্গণে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের ২১ নভেম্বর মুক্তিযুদ্ধের সময় সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত হয়েছিলো বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী। পাকিস্তান হানাদারবাহিনী ও তাদের দোসরদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে সাধারণ মানুষের সঙ্গে একাত্ম হয়ে দেশকে স্বাধীন করতে এক অনন্য ভূমিকা পালন করে। এ বাহিনী ছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের বাহিনী। শুধু স্বাধীনতা যুদ্ধই নয়, সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের অতন্দ্র প্রহরী। শুধু দেশই নয়, বিদেশের মাটিতে আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর কর্মকা- বিশে^র মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে। যার প্রশংসায় পঞ্চমুখ জাতিসংঘ। জাতীয় উন্নয়নে সশস্ত্র বাহিনী গৌরব উজ্জল অবদান আজ সর্বজন স্বীকৃত। সশস্ত্র বাহিনী এমনই এক বাহিনী, যার প্রতি এদেশের জনগনের রয়েছে অগাধ আস্থা, বিশ^াস ও ভালোবাসা। বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কল্যাণে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা ছাড়াও দেশের অবকাঠামো ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন, ছিন্নমূল মানুষের জন্য বাসস্থান তৈরি করা এবং অন্যান্য জনকল্যাণমুখী কাজের প্রতিনিয়ত সশস্ত্র বাহিনী নিবেদিত প্রাণ। ছবিসহ ভোটার তালিকা, জাতীয় পরিচয়পত্র, মেশিন রিডেবল পাসপোর্টসহ জাতীয় মহাসড়ক নির্মাণ, ফ্লাইওভার, আন্ডারপাস নির্মাণে সশস্ত্র বাহিনীর ভূমিকা গৌরবজনক। গণতান্ত্রিক এবং নিয়মতান্ত্রিক নেতৃত্বের প্রতি অনুগত ও শ্রদ্ধাশীল থেকে পেশাগত দক্ষতা ও দেশপ্রেমের সমন্বয় ঘটিয়ে আমাদের সশস্ত্র বাহিনী অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে তৎপর থাকবে। জাতির সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়াই হবে তাদের অঙ্গীকার। সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি জাতির প্রয়োজনে সর্বদা অবদান রাখবে বলে আমাদের বিশ^াস।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা এরিয়া কমান্ডার ৩৩ পদাতিক ডিভিশন ও জেনারেল অফিসার কমান্ডিং মেজর জেনারেল মোঃ রাশেদ আমিন, এনডিসি, পিএসসি। সংক্ষিপ্ত আলোচনা শেষে কেক কাটা হয়।
এ সময় চাঁদপুর জেলা থেকে উপস্থিত ছিলেন ফরিদগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ড. শামছল হক ভূঁইয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম দুলাল পাটওয়ারী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আব্দুল হাফিজ খান, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক জীবন কানাই চক্রবর্তী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার মোঃ মহসিন পাঠান, মৃণাল কান্তি সেন, কার্যকরী সদস্য মোঃ আবুল হাশেম, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডঃ সেলিম আকবর, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি বিএম হান্নান, সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক সোহেল রুশদী প্রমূখ।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর