মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০
logo
মতলব উত্তরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী গণ সমাবেশে ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া
দেশে কাউকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ করতে দেয়া হবে না
প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর, ২০১৬ ১২:৪৮:৪৬
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব
চাঁদপুর: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম এমপি বলেছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দুপাড়ার মন্দির ও বাড়িঘরে হামলাকারীদের কালো হাত ভেঙ্গে দেয়া হবে। সকল অপরাধীর দ্রুত বিচার আইনে বিচার করা হবে। হিন্দু-মুসলিম সকলে মিলে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। স্বাধীন দেশে কাউকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ করতে দেয়া হবে না।


শুক্রবার বিকেলে মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের চরপাথালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী গণ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।


তিনি আরো বলেন, মতলব উত্তর ও মতলব দক্ষিণসহ সারাদেশে সকল ধর্মের মানুষ নিজ নিজ কৃষ্টি-কালচার স্বাধীনভাবে পালন করছে। কোনো ধর্মের মানুষকে নিজ ধর্ম পালনে কেউ বাধা দিচ্ছে না। আমরা যখন যুদ্ধ করেছি, তখন সকল ধর্মের মানুষ যুদ্ধ করেছি। তখনতো কে কোন্ ধর্মের তা কেউ বলে নি। এ স্বাধীন দেশকে সুন্দরভাবে গড়তে সকল ধর্মের মানুষ এক হয়ে কাজ করবো।


তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে বিব্রত করতেই এ হামলার ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এ লুটেরা খুনিদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না। এ সমস্ত খুনির দল নাসিরনগরের মানুষদের কলঙ্কিত করেছে।


ত্রাণমন্ত্রী আরো বলেন, যেসব মন্দির ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেগুলো সংস্কার করে দেয়া হবে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদেরও সহায়তা করা হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে ত্রাণমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতত্বে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়া আটকাতেই একের পর এক ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। তবে আমরা জঙ্গিদের ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছি। ঐক্যবদ্ধভাবে আমাদের সামপ্রদায়িক সমপ্রীতি রক্ষা করতে হবে।


ত্রাণমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আগুন সন্ত্রাসী কিংবা জঙ্গিদের ছাড় দেন নি। ফলে এ হামলায় যারা জড়িত তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না। শেখ হাসিনার সরকার এ দেশের উপর একটি অসামপ্রদায়িকতার ছাতা ধরে রেখেছেন। ফলে যারা এ অসামপ্রদায়িকতা নষ্ট করতে চায় তারাই হামলা করেছে।


উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুসের সভাপতিত্বে সাংগঠনিক সম্পাদক এইচএম জাহাঙ্গীর আলম মাস্টারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ছেঙ্গারচর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন প্রধান।


সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সুলতানাবাদ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, আওয়ামী লীগ নেতা মনজুর মোর্শেদ স্বপন, সুলতানাবাদ ইউনিয়ন মহিলা লীগের সভানেত্রী শামীমা নাসরিন, সমাজসেবক কাজী নাসির উদ্দিন মৃধা, আওয়ামী লীগ নেতা যুগল কৃষ্ণ সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মিনহাজ উদ্দিন খান, যুগ্ম আহ্বায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ, সুলতানাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ করিম সরকার, সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান প্রমুখ।


অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন থানার ওসি আলমগীর হোসেন মজুমদার, উপজেলা ইউপি চেয়ারম্যান কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও মোহনপুর ইউপির স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শামসুল হক চৌধুরী বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম লস্কর, শহীদ উল্লাহ প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান প্রধান, গাজী ইলিয়াছুর রহমান, মতলব পৌরসভার মেয়র আওলাদ হোসেন লিটন, আওয়ামী লীগ নেতা বোরহান উদ্দিন চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ, দেলোয়ার হোসেন দানেশ, আলহাজ্ব মোঃ হানিফ দর্জি, সাজেদুল হাসান বাবু বাতেন, আজমল হোসেন চৌধুরী, লোকমান আহমেদ মুন্সি, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন সরকার মুকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক সলিম উল্লাহ বারী চৌধুরী সোহেল, স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম ডাবলু, সদস্য সচিব অ্যাডঃ আক্তারুজ্জামান, উপজেলা মহিলা লীগ নেত্রী সাবিনা ইয়াছমিন স্বপ্না প্রমুখ। এ সময় উপজেলা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর