শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০
logo
চাঁদপুর এ্যাথলেটদের সঠিক বাছাইয়ে ব্যর্থঃ ৪ উপজেলা অংশ নেয়নি
প্রকাশ : ১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:০১:০৯
প্রিন্টঅ-অ+
শরীফ চৌধুরী

চাঁদপুর: জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের তত্বাবধানে পরিচালিত বাংলাদেশ এ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় ও চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে তৃণমূল পর্যায়ে প্রতিভাবান এ্যাথলেটদের বাছাই অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার চাঁদপুর ষ্টেডিয়ামে প্রতিভাবান এ্যাথলেটদের বাছাই পর্বে বালক ও বালিকা উভয় গ্রুপে প্রতিভাবান ক্ষুদে এ্যাথলেটরা অংশ নেয়।  বাংলাদেশের এ্যাথলেটিক্স এর মানোন্নয়নের লক্ষে সারাদেশে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের তত্বাবধানে এ বাছাই প্রকৃয়া পরিচালিত হয়। কিন্তু দিনব্যাপি এ বাছাইপর্বের লক্ষনিয় ছিলো ৪ উপজেলার কোন প্রতিযোগী বাছাই পর্বে অংশগ্রহন করেনি। কে বা কাদের ব্যর্থতায় এই ৪ উপজেলার এ্যাথলেটরা বাছইয়ে আসেনি সে প্রশ্ন জেলার অনেক ক্রীড়া সংগঠক ও সাবেক এ্যাথলেটদের। অংশগ্রহন না করা ৪ উপজেলাগুলো হলো কচুয়া উপজেলা, ফরিদগঞ্জ উপজেলা, হাইমচর উপজেলা ও শাহরাস্তি উপজেলা। এ বিষয়ে চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা সুত্র জানায়, প্রত্যেক উপজেলায় চিঠি দেওয়া হয়েছে। চাঁদপুর শহরে মাইকিং করা হয়েছে কিন্তু কেন অনেকে অংশ নেয়নি তা জানেনা।
     প্রশিক্ষনের জন্য আগত বাংলাদেশ এ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের প্রশিক্ষক জাতীয় এ্যাথলেট সালেহ আহমেদ জানান, চাঁদপুর জেলার ৪ উপজেলা অংশ নিলেও বাকি উপজেলা কেন অংশ নেয়নি তা তিনি জানেননা। তবে এতে করে হয়তো অনেক প্রতিভাবাণ ক্ষুদে এ্যাথলেট বাছাই করা সম্ভব হয়নি। এখন যাদের পেয়েছি তাদের থেকেই বাছাই করতে হচ্ছে। একটি সুত্র জানায় শুধু মাত্র তৃণমূল পর্যায়ে প্রতিভাবান এ্যাথলেটদের বাছাইপর্বেই নয় জেলার অনেক প্রশিক্ষন, বাছাই কিংবা প্রতিযোগীতায় বার্তা পাওয়ার পরেও এসব উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা গুলো অংশ নিতে অনিহা প্রকাশ করে। এতে করে এসব উপজেলার ক্রীড়া সংস্থার কার্যক্রম মান উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন থেকে যায়।
   এ বিষয়ে কচুয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জানান,  তৃণমূল পর্যায়ে প্রতিভাবান এ্যাথলেটদের বাছাই পর্বে কচুয়ার এ্যাথলেটরা যাওয়ার কথা ছিলো কিন্তু কেন গেলনা তা আমার জানা নেই। আমি এ বিষয়ে খবর নিয়ে দেখছি। তাছাড়া নাম প্রকাশ না করার শর্তে চাঁদপুরের সাবেক অনেক এ্যাথলেট জানান, তৃণমূল পর্যায়ে প্রতিভাবান এ্যাথলেটদের বাছাই পর্বের বিষয়টি তাদের জানা নেই। তাদের অনেকে আক্ষেপের সাথে বলেন চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে মূল্যায়িত হোক বা না হোক জেলার এ্যাথলেটিক্স সহ অন্যান্য সকল ক্রীড়ার মান উন্নয়ন হোক এটাই তাদের প্রত্যাশা। এ বিষয়ে ক্রীড়াবীদদের প্রত্যাশা চাঁদপুরের ক্রীড়ার মান উন্নয়নে যেন এ ধরনের জাতীয় প্রোগ্রামগুলোকে গুরুত্ব সহকারে প্রধান্য দেয়া হয় ।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর